বেড়ায় চিকিৎসকের অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

বেড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

পাবনার বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও নার্সদের অবহেলায় মো. আবুল হাসেম (৫৫) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সে বেড়া পৌর এলাকার সানিলা মহল্লার মৃত নজির প্রামাণিকের ছেলে। এলাকাবাসী ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার রাতে পৌর এলাকার আবুল হাসেম পেটের ব্যথা নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। সেখানে ভর্তির পর তারা পেটের ব্যথা আরো বাড়তে থাকে। এ সময় চিকিৎসক মনিরুজ্জামানের পরামর্শে রোগীর চিকিৎসা চলতে থাকে। এমতাবস্থায় হঠাৎ করে রাত ১১টার সময় রোগীর শরীরে ডেক্সট্রোজ নরমাল স্যালাইন (ডিএনএস) চলা অবস্থায় রোগী ছটফট করতে থাকে। এ সময় ওয়ার্ডে কর্তব্যরত সিনিয়র নার্স মোছা. নাসিমা খাতুন, সবিতা রানী ও মতিয়ার রহমানকে ঘটনার বিবরণ দিয়ে ডেকে স্যালাইন খুলে দেওয়া অনুরোধ করেন সেবা নিতে আসা অন্য রোগীরা। কিন্তু তারা রোগীর কাছে আসেন না। পরে অন্যান্য বেডের লোকজন নার্সদের ডাকতে গেলে তারা উল্টো তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। সারারাত চিকিৎসক ও নার্সরা তার কাছে না যাওয়ায় অবশেষে সকালে তার মৃত্যু হয়। এ সময় অন্য রোগীর স্বজনরা চিৎকার করলে পরে চিকিৎসক ও নার্সরা এসে সকাল সোয়া ৮টায় তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে নিহতের স্বজনরা ক্ষিপ্ত হয়ে হাসপাতালে এসে চিকিৎসক ও নার্সদের ওপর হামলার চেষ্টা চালায়। এ সময় চিকিৎসক ও নার্সরা পালিয়ে যান। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অতিরিক্ত প. প. কর্মকর্তা ডাক্তার মো. মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, এ ঘটনায় নিহতের স্বজনরা একটি অভিযোগ করেছে। আবুল হাসেমের মৃত্যুর ঘটনায় ৩ জন ডাক্তারকে নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে চিকিৎসক ও নার্সদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে ওসি মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি।

"