শিবালয়ে হতদরিদ্রদের চাল বিতরণে অনিয়ম

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলায় হতদরিদ্রদের মাঝে সরকারের ১০ টাকা কেজি হারে চাল বিতরণ কর্মসূচিতে ডিলারদের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা ও চাল বিতরণের ডিলারদের যোগসাজশে এসব অনিয়ম করা হচ্ছে বলে ভুক্তভোগীদের দাবি। হতদরিদ্রদের মাঝে এস চাল বিতরণ না করে কালো বাজারের বিক্রয় করা হচ্ছে বলে তারা জানান।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, উপজেলায় হতদরিদ্রদের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাধ্যমে এ উপজেলার ৫১৫৩ জন হতদরিদ্রদের নামের তালিকা করেন উপজেলা খাদ্য বিভাগ। তালিকায় নাম থাকলেও কার্ড না পাওয়ায় সরকারের এ সুবিধা গ্রহণ করতে পারছে না এ উপজেলার অধিকাংশ হতদরিদ্ররা। আর তালিকায় থাকা প্রতিটি নামের পাশে টিপসই ও স্বাক্ষরযুক্ত চাল তুলে নিচ্ছে ডিলাররা। খাদ্য অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজশে এ কাজ করেছেন ডিলাররা, এমনটা অভিযোগ করছেন স্থানীয়রা।

কানাইদিয়া চর এলাকার মোহন মন্ডল জানান, এ পর্যন্ত একবার চাল পেয়েছি। তালিকায় থাকার পরেও চাল পাচ্ছি না। পরের মাসে চাল আনতে গেলে ডিলার চাল না দূর ব্যবহার করে তাড়িয়ে দেয়। উপজেলার সদর ইউনিয়নের ডিলার মনোরঞ্চল শীল নকুল জানান, তালিকায় যাদের নাম আছে এবং যাদের কার্ড আছে কেবল তাদেরই চাল দেওয়া হচ্ছে। আমি ও আমার কোনো লোকজন চাল বিতরণে কোনো অনিয়ম করেনি। এ বিষয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ও উপজেলা খাদ্যবান্ধব কমিটির সদস্য সচিব শাহ মো. হেদায়েতুল্লাহ্ অভিযোগ অশিকার করে বলেন, হতদরিদ্রদের মাঝে চাল বিতরণে অনিয়মের কোনো সুযোগ নেই। কারো বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইউএনও ও খাদ্যবান্ধব কমিটির সভাপতি মেহেদী হাসান বলেন, চাল বিতরণে অনিয়মের বিষয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি।

"