ঘোড়াশালে বাংলাদেশ জুটমিল

পলাশে ৬ দফা দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

পলাশ (নরসিংদী) প্রতিনিধি

নরসিংদির পলাশ উপজেলার ঘোড়াশালে বাংলাদেশ জুটমিলের শ্রমিকরা ছয় দফা দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। গতকাল রোববার সকালে কয়েকশ শ্রমিক মিলের প্রধান ফটকের সামনে জড়ো হয়ে এ বিক্ষোভ সমাবেশ পালন করেন। শ্রমিকরা দাবী করেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত শ্রমিকদের প্রস্তাবিত মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, অবিলম্বে পাট ক্রয়ের অর্থ প্রদান, সকল বকেয়া সাপ্তাহিক মজুরি, মাসিক বেতন, অবসরকৃত এবং চাকুরিচ্যুত শ্রমিকদের পাওনা পি.এফ, গ্রাইচুটির টাকা প্রদানসহ ছয় দফা দাবী বাস্তবায়ন করতে হবে।

শ্রমিকরা জানান, গতকাল পলাশ শিল্প এলাকায় ঘোড়াশালস্থ বাংলাদেশ জুটমিলে শ্রমিকরা মিলের প্রধান ফটকের সামনে জড়ো হয়ে এ বিক্ষোভ সমাবেশ পালন করেন। বাংলাদেশ জুটমিলের সিবিএ নন-সিবিএ ঐক্য পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন, সিবিএ নন-সিবিএ সম্মিলিত পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক ও সিবিএ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান, সিবিএ সহসভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সাহেব আলী, আবুল খায়ের, সিবিএ নেতা হারুন অর রশিদ ও নন-সিবিএ নেতা মোতাহার হোসেন প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে শ্রমিকদের প্রস্তাবিত মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন ও পাট কেনার টাকাসহ ছয় দফা দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান। নতুবা কঠোর কর্মসূচী দেওয়ার হুমকি দেন। এ সময় বক্তারা আরো বলেন, বিজিএমসি পাট কেনার টাকা না দেয়ার ফলে বর্তমানে মিলে পাট সংকট দেখা দিয়েছে এবং পাট সংকটের জন্য দৈনিক উৎপাদন ৪৫ টন থেকে ১৪ টনে নেমে এসেছে।

বাংলাদেশ জুট মিল বিজিএমসির কাছে ৯০ কোটি টাকা পাওনা থাকলেও বিজিএমসি সময় মতো টাকা না দেয়ার ফলে পাট কেনা ও শ্রমিকদের মজুরি দিতে পারছে না মিল কর্তৃপক্ষ।

এসব বিষয়ে বাংলাদেশ জুটমিলের মহাব্যবস্থাপক মো. গোলাম রব্বানীর সাথে কথা বললে তিনি বিজেএমসির অনুমতি ব্যতীত কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান।

"