ভূত সেজে ভয় দেখাল নাইটগার্ড

ঝিনাইদহে এটিআইয়ের ৫ ছাত্রী অজ্ঞান

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের (এটিআই) ছাত্রী হোস্টেলে ‘ভূত’ সেজে ছাত্রীদের ভয় দেখানোর অভিযোগ উঠেছে নাইটগার্ডের বিরুদ্ধে। ভূত সেজে ভয় দেখানোর ফলে ওই প্রতিষ্ঠানের পাঁচ ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এর মধ্যে সাথী, তিথি ও সুমাইয়াকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে এটিআইর ছাত্রী হোস্টেলে এ ঘটনা ঘটে।

ঝিনাইদহ কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ আবদুল কাদের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, দায়ী নাইটগার্ডের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ছাত্রীদের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাত ১২টায় নাইটগার্ড হাসেম মেয়েদের বাথরুমে প্রবেশ করে ভৌতিক আওয়াজ শুরু করে। ভয়ে প্রথম বর্ষের ছাত্রীরা ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে নাইটগার্ড মাহিন নামে এক ছাত্রীর নাম ধরে ডাকে। এ সময় সাথী নামে এক ছাত্রী উঁকি দিয়ে দেখেন নাইটগার্ড সাদা পোশাক পরে জানালার পাশে দাঁড়িয়ে আছে। এই দৃশ্য দেখে সাথী, তিথি, সুমাইয়া, ববি ও লুনা ভীত হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। ভয়ে ছাত্রী হোস্টেলের আরো ছয় ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তিনজনকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে গত শুক্রবার সকালে ছাত্রীদের অভিভাবকরা ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ছুটে আসেন এবং মেয়েদের বাসায় নিয়ে যান। বাড়ি ফিরলেও তিথি ও সাথী নামে দুই ছাত্রী এখনো স্বাভাবিক হতে পারেনি।

ঝিনাইদহ কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ আবদুল কাদের জানান, ছাত্রী হোস্টেলে ৫০ জন মেয়ে আছে। শুনেছি নাইটগার্ড এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত। সেই ভূত সেজে ভয় দেখিয়েছে। দ্রুতই নাইটগার্ডকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

 

"