‘লেখেন! কি যে করবেন তা আমার জানা আছে’

প্রকাশ : ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য সরকারের বরাদ্দ করা ভিজিএফের চালের বিনিময়ে রাস্তার কাজ করিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। উপজেলার চর-গোরকম-প ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হাবি দম্ভ করে বলেন, ‘লেখেন! কি যে করবেন তা আমার জানা আছে। আমি কাঁচা রাস্তার ভাঙা অংশ তাদের দ্বারা মেরামত করেছি। তাতে কী হয়েছে? আমি তো বাড়ির কাজ তাদের দ্বারা করে নেইনি।’

ভুক্তভোগী আবদুল কাদের, জিয়ারুল, শাহাআলম, ফারুক, শুক্কুর আলী, শাহজাহান ও জসিম জানান, ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হাবি বলেছেনÑআমরা যদি কাঁচা রাস্তার ওই ভাঙা অংশটুকু মেরামত করে দিই, তাহলে তিনি আমাদের ভিজিএফের চাল দেবেন। কাজ না করলে দেবেন না। তাই বাধ্য হয়ে কাজ করেছি। তারপরও ১৪টি ২০ কেজি চালের টোকেন পাওয়ার কথা থাকলেও পেয়েছি ১০টি। বাকিটা তার আত্মীয়স্বজনদের মধ্যে দিয়েছেন।

শুক্রবার ওই এলাকায় গিয়ে জানা গেছে, ভুক্তভোগী কাদের, জিয়ারুলসহ পাঁচজনের চাল ওজনে কম হওয়ায় তারা ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হাবি মেম্বারের বিয়াই কাজের দালাল আফানের বাড়িতে ৬৮ কেজি চাল ফেরত দিয়ে আসেন। এ নিয়ে ওই এলাকার গরিব ও দুস্থ মানুষের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। এলাকার অনেকে জানালেন, সরকারের মহৎ কাজটি প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হাবি এমন কাজ করেছেন। নাওডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান মুসাব্বের আলী মুসা জানান, মেম্বার রিলিফের চালের বিনিময়ে গরিব দুস্থদের দিয়ে কোনো কাজ করতে পারেন না। এটা বে-আইনি। ইউএনও দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও জানান, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

"