বরিশালের বাজারে রুপালি ইলিশ, দামেও সস্তা

প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

বরিশাল প্রতিনিধি

আগেভাগেই রুপালি ইলিশের দেখা মিলেছে বরিশালের বাজারে। ইলিশের সরবরাহ বেশি থাকায় দামেও বেশ সস্তা। এতে একদিকে জেলেরা যেমন খুশি, অপরদিকে ক্রেতারাও ভিড় করছেন মাছের বাজারে। সকালের সূর্য উঠতে না উঠতেই ব্যস্ত হয়ে পড়ছে শ্রমিকরা। সাগর থেকে আসা মাছ ধরার নৌযান ভিড় করছে নগরের পোর্ট রোডের মাছের আড়তে।

ইলিশে কানায় কানায় পূর্ণ বরিশাল পোর্ট রোডের মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র। পর্যাপ্ত পরিমাণে ইলিশ আসায় ব্যস্ত সময় পার করছেন এখানকার মৎস্য শ্রমিকরা। সকাল থেকে দুপুর গড়িয়ে বিকাল, ফিশিং বোট থেকে মাছ খালাশে ব্যস্ত তারা। সাগরের ইলিশের প্রচুর আমদানি থাকায় পাইকারি এবং খুচরা বাজারে পূর্ববর্তী সময়ের চেয়ে মাছের দামও এখন সস্তা বলে জানিয়েছে ব্যবসায়ীরা। পাইকারি মূল্যে ইলিশ কিনে খুচরা বাজারে বিক্রি করা হবে বলে জানান তারা।

ইজারাদার ও মৎস্য আড়তদার সমিতি সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে সাগরের ইলিশ মণপ্রতি ১৯ থেকে ২৩ হাজার টাকা দরে বিক্রয় হচ্ছে। এছাড়াও স্থানীয় নদীর ইলিশ মাছ (এলসি) মণপ্রতি ৩৫ থেকে ৩৬ হাজার টাকা দরে বিক্রয় হচ্ছে। তবে স্থানীয় নদীর মাছ এখনো তেমন একটা আশা শুরু করেনি। আগে অভিযান ছাড়া মাছের যে উৎপাদন হতো। কিন্তু বর্তমানে এত অভিযান পরিচালনার করার পরেও সেই মাছ পাওয়া যাচ্ছে না। দিন দিন ইলিশের সংখ্যা কমে যাচ্ছে।

পোর্ট রোডের মৎস্য ব্যবসায়ী সিদ্দিক বলেন, শতাধিক ফিশিংবোট ভোলা জেলার অন্তর্গত বঙ্গোপসাগর এলাকা থেকে এই ইলিশ মাছ নিয়ে এসেছে। এ ছাড়াও কলাপাড়ার মহিপুর মৎস্য বন্দর থেকে মোকামগুলোতে ট্রাকে ট্রাকে আসতে শুরু করেছে সাগরের ইলিশ।

ভোলা থেকে আসা আনোয়ার বলেন বলেন, ইলিশের মৌসুম শুরু হয়ে গেছে। সঙ্গে মাছের আমদানিও ভালো। কিন্তু প্রচুর মাছ আসায় দাম অনেকটা কমে গেছে। তিনি আরো বলেন, গত কয়েক দিনে সাগর থেকে প্রায় ৬০-৭০ মণ ইলিশ সংগ্রহ করেছেন। কিন্তু বরিশালে এসে মাছের দাম শুনে হতাশ হয়েছেন। ইলিশের মূল্য আগের বছরের তুলনায় অর্ধেক কমে গেছে।

পোর্ট রোড বাজারের মৎস্য শ্রমিক সিরাজ উদ্দিন বলেন, এতদিন তেমন কোনো কাজ ছিল না। তবে এবার আগেভাগেই ইলিশ আসতে শুরু করেছে, তাই আমাদের ব্যস্ততাও বেশি। প্রতিদিনই ৮ থেকে ১০টি ট্রলার ঘাটে আসে। আমরা সাঝি বোঝাই করে মাছ নামিয়ে আনি। এতে আমাদের দৈনিক ইনকামও বাড়ছে। সামনে বোর্ড আরো বেশি আসলে ব্যস্ততার কমতি থাকবে না।

বরিশাল মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের ইজারাদার ও মৎস্য আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক নীরব হোসেন টুটুল প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, সাগরের বেশির ভাগ ইলিশের ওজন ৫০০-৬০০ গ্রামের হয়ে থাকে। গত বছর এ সময়ে ৪ হাজার মণ ইলিশ এসেছে বরিশালের পোর্ট রোডে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে। আর এখন আসছে মাত্র দুই থেকে আড়াই হাজার মণ ইলিশ। তাও আমাদের স্থানীয় নদীর নয়, সাগরের ইলিশ।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস বলেন, কিছু ইলিশ মোকামে আসলেও দিনে দিনে তা আরো বাড়ছে। বরিশালে প্রচুর পরিমাণে মাছ এসেছে। তাছাড়া জেলেরা জানিয়েছে, সাগরে প্রচুর ইলিশ রয়েছে, কিন্তু আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় তারা সেটা ধরতে পারছে না।

এদিকে আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় দীর্ঘ অপেক্ষার পর সাগরে মাছ ধরতে শুরু করেছে জেলেরা। তা ছাড়া বর্তমানেও আবহাওয়া ভালো নেই। যার ফলে আশানুরূপ মাছ পায়নি বলেও জানায় জেলেরা। আরো দুই একদিন সাগরে থাকতে পারলে আরো বেশ কিছু মাছ ধরতে পারতেন।

"