মাদারগঞ্জে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

মাদারগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে কারেন্ট জাল। প্রকাশ্যে উপজেলার প্রায় হাটবাজারে কারেন্ট জাল বিক্রি হলেও মৎস্য অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। অধিক মুনাফার আশায় উপজেলার কিছু ব্যবসায়ী দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এ কারেন্ট জাল আমদানি করে বিভিন্ন হাটবাজারে প্রকাশ্যেই বিক্রি করছে বলে অভিযোগ।

জানা গেছে, উপজেলা মৎস্য বিভাগের মনিটরিং না থাকায় প্রতিদিন হাট বাজারগুলোতে হাজার হাজার টাকার কারেন্ট জাল বিক্রি হচ্ছে। আর এ জাল দিয়ে এক শ্রেণির অর্থলোভী মৎস্য ব্যবসায়ীরা অবাদে পোনা ও মা মাছ নিধন করছে। সরকার কারেন্ট জাল নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেও তা কোনো কাজে আসছেনা।

নিয়ম অনুযায়ী এই আইন অমান্যকারীকে ৫০০ টাকা জরিমানা বা ছয় মাসের জেল অথবা উভয় দ-ে দন্ডিত করার ঘোষণা রয়েছে। কিন্তু এসব আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে আবাদে কারন্টে জাল দিয়ে মা ও পোনা মাছ শিকার করছে অসাধু শিকারীরা। এই ধারা অব্যহত থাকলে দেশীয় প্রজাতির মাছ বিলুপ্ত হয়ে যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা। নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল ও পোনা মাছ নিধনের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিলে বাঁচানো যেতো বিলুপ্ত প্রায় দেশিয় প্রজাতীর মাছ।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কামরুজ্জামান খান বলেন, কারেন্ট জাল মজুত, ক্রয়-বিক্রয়, ব্যবহার ও বহন সম্পূর্ণ নিষেধ। তবে কোথাও এই নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল ক্রয়-বিক্রয় ও ব্যবহার করতে দেখা গেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

"