সৈয়দপুরে নকল পণ্যের অবাধ বাণিজ্য

প্রকাশ : ১০ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি

নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরে নকল পণ্যের অবাধ বাণিজ্য চলছে। নামি-দামি মোড়কে মোড়ানো পণ্যগুলো দেখলে বুঝার উপায় নেই কোনটি আসল আর কোনটি নকল।

শহর ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন ভাষা-ভাষীর প্রায় চার লাখ মানুষের বসবাস এ উপজেলা শহরে। উপচেপড়া জনগোষ্টির ভিড়ে গড়ে ওঠা অসংখ্য অবৈধ কারখানায় তৈরি হওয়া পণ্যগুলো মোড়ানো হচ্ছে নামি-দামি কোম্পানির মোড়কে। প্রতারক চক্রের হাতে উৎপাদিত ও পরিবেশিত এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ, ভারত ও চীনের অভিজাত কোম্পানির উৎপাদিত কসমেটিক, পারফিউম, চানাচুর, চিপস, বিস্কুট, সাবান, চকলেট, কয়েল, কোমল পানীয়সহ একাধিক পণ্য। ঢাকার জিনজিরা থেকে নিয়ে আসা নিম্নমানের কসমেটিক সামগ্রী, হরেক রকম সাবানের কেমিক্যালসহ নামি-দামি কোম্পানির মোড়ক নিয়ে এসে এখানে তৈরিসহ বাজারজাত করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। শহরের প্রায় প্রতিটি দোকানেই দেদারছে বিক্রি হচ্ছে নিম্নমানের এসব পণ্য। বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীরা জানান, সৈয়দপুর শহরে গড়ে ওঠা বেশিরভাগ ফ্যাক্টরির নেই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযানে নামলেই এসব ফ্যাক্টরি ও গুদাম থেকে বিভিন্ন নকল পণ্য উদ্ধার করা সম্ভব।

সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের আরএমও ডা. আরিফুল ইসলাম বলেন, নকল সাবান ও প্রসাধনী ব্যবহারের ফলে ত্বক ও শরীরে চর্ম রোগ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এক পর্যায়ে ক্যান্সার হওয়ারও ঝুঁকি রয়েছে। এ ছাড়া নকল পণ্য খেয়ে ডায়রিয়া, আলসারসহ নানা ধরনের পেটের পিড়া হতে পারে বলে জানান তিনি।

"