টঙ্গীতে দফায় দফায় সংঘর্ষ, আহত ৫

প্রকাশ | ০৯ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের টঙ্গীর ৫৫নং ওয়ার্ডে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর পক্ষের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও বাড়ি-ঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সেলিম গ্রুপের আ. রশিদ সোহেল, বাবু ও মুন্নাসহ কমপক্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন। গত শনিবার রাতে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত ২০১৩ সালে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (জিসিসি) প্রথম নির্বাচনে টঙ্গীর ৫৫নং ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত হাসান উদ্দিন সরকার পক্ষের সেলিম হোসেন ও সালাউদ্দিন সরকার পক্ষের আবুল হাসেম কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে সেলিম হোসেন বিজয়ী হন। এরপর থেকেই উভয়ের মধ্যে শত্রুতা শুরু হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৬ জুন সিটি নির্বাচনের দিন সকাল থেকেই উভয় গ্রুপের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা, বাকবিত-া চলতে থাকে। সন্ধ্যার দিকে ভোট গণনার পর বেসরকারী ফলাফলের ভিত্তিতে আবুল হাসেমকে বিজয়ী ঘোষণার পর থেকেই তার গ্রুপের লোকজন সেলিম গ্রুপের লোকজনকে হুমকি-ধামকি ও মারধর করতে থাকে। এ সময় কাউন্সিলর সেলিম হোসেনের মিলগেটস্থ কার্যালয়, স্থানীয় কলাবাগান কবরস্থান সংলগ্ন দোকান, গ্যারেজ ও বেশ কয়েকটি বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এক পর্যায়ে হাসেম গ্রুপের লোকজনের হামলা প্রতিরোধের লক্ষ্যে সেলিম হোসেন তার লোকজনকে জড়ো হওয়ার আহ্বান জানান। খবর পেয়ে টঙ্গী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। সেলিম হোসেন জানান, আমার অফিস ভাঙচুর করেছে। আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি। থানায় জিডি ও নির্বাচন কর্মকর্তাকে জানিয়েছি। অভিযুক্ত হাসেমের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ব্যবহৃত মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। টঙ্গী থানার ওসি কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

"