মৎস্য খামারের গর্ভে বিজয়নগরের রাস্তা

প্রকাশ : ২৩ জুন ২০১৮, ০০:০০

বিজয়নগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ণ হরষপুর-সিঙ্গারবিল সড়কের নিদারাবাদ এলাকায় একটি মৎস্য খামারের গর্ভে ভেঙে পড়ে বিলীন হচ্ছে সরকারি রাস্তা।

উপজেলার ৫নং হরষপুর ইউনিয়নের নিদারাবাদ মৌজায় অবস্থিত হরষপুর-সিঙ্গারবিল সড়ক।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সড়কের হরষপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত নিদারাবাদ মৌজাস্থিত দেওয়ান বাজারের দক্ষিণ পাশে প্রায় ৪৫০ শতাংশ ধানের জমিতে কয়েক বছর ধরে পানিবন্দি করে মৎস্য চাষ করছে একটি প্রভাবশালী চক্র। সড়কের পশ্চিমাংশকে অবৈধভাবে খামারের পাড় হিসেবে ব্যবহার করছে তারা। এতে করে ক্রমান্বয়ে মৎস্য খামারের গর্ভে ভেঙ্গে পড়ছে অধিকাংশ রাস্তা। এভাবে দখল করে রেখেছে প্রায় ৪০০ ফুট সরকারি রাস্তা। মৎস্য খামারের পশ্চিমাংশে এবং হরষপুর-সিঙ্গারবিল সড়কের পূর্বাংশে সরকারি রাস্তা ক্রমান্বয়ে ভেঙ্গে পড়ছে মৎস্য খামারের মধ্যে। রাস্তার পাশে লাগানো বিভিন্ন কাঠ ও ফলদ গাছও বিলিন হচ্ছে খামারের গর্ভে।

স্থানীয়রা জানায়, এই রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত সহস্রাধিক লোকের পধচারণাসহ ছোট-বড় যানবাহন চলাচল করে থাকে। ভারতীয় সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় এ সড়ক দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল টিম এবং ভারত-বাংলাদেশের ট্রানজিট পয়েন্টের মালামালের গাড়ি চলাচল করে থাকে। এ সড়কটি আখাউড়া ও বিজয়নগর উপজেলার বিকল্প সংযোগ রাস্তা হিসেবেও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। রাস্তারটি ব্যাপারে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহণ না করা হলে মৎস্য খামারের আওতাভূক্ত প্রায় ৪০০ ফুট রাস্তার পুরোটাই খামারের মধ্যে বিলীন হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে আশঙ্কা স্থানীয়দের।

স্থানীয় লুৎফুর রহমান বলেন, এ রাস্তাটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ। রাস্তাটিকে মৎস্য খামারের পাড় হিসেবে ব্যবহার করায় রাস্তাটি ভেঙ্গে যাচ্ছে। এমনকি নিচের দিকে দেবে যাচ্ছে। রাস্তাটির ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানান তিনি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য নাছির উদ্দিনের সঙ্গে কথা বললে তিনি প্রতিদিনের সংবাদকে জানান, এ বিষয়ে আমি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি। তবে যারা মৎস্য খামার করে সরকারি রাস্তাকে অবৈধভাবে পাড় হিসেবে ব্যবহার করছে তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিকভাবে পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানান তিনি।

"