বাসস্ট্যান্ড করার জন্য প্রয়োজনীয় জায়গা নেই পৌরসভার!

আমতলীতে বাসস্ট্যান্ডের অভাবে যাত্রী দুর্ভোগ চরমে

প্রকাশ : ১৪ জুন ২০১৮, ০০:০০

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

বরগুনার আমতলী পৌর শহরে বাসস্ট্যান্ড না থাকায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বাসযাত্রী, শ্রমিকসহ পথচারীদের। নির্দিষ্ট স্থান না থাকায় রাস্তার ওপরই রাখা হচ্ছে বাসগুলো। ফলে স্বাভাবিক যান চলাচলে বিঘœ ঘটছে। বিশেষ করে বর্ষা শুরু হওয়ায় ভোগান্তি সীমা ছাড়িয়েছে। বৃষ্টিতে ভিজেই বাসে ওঠানামা করতে হচ্ছে যাত্রীদের।

পৌর মেয়র বলেছেন, বাস টার্মিনাল নির্মাণের জন্য পরিকল্পনা থাকলেও প্রয়োজনীয় জমি তাদের কাছে নেই। পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা, তালতলীর টেংরাগীরি, গলাচিপা থানা ও বরগুনা জেলা সদরের জংশন হলো আমতলী। শুধু আমতলী থেকেই প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন রুটে দুই শতাধিক বাস চলাচল করে থাকে। স্থানীয়রা জানান, আমতলী পৌর শহরে কোনো বাস টার্মিনাল না থাকায় বাসগুলো আমতলী হাসপাতাল সড়ক, চৌরাস্তা, বটতলা, একে স্কুল মোড় সড়কে বাস থামিয়ে যাত্রী ওঠানামা করে। ফলে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে প্রতিনিয়ত। প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

পথচারী জামিল হাসান বলেন, আমতলীতে নির্দিষ্ট বাসস্ট্যান্ড না থাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। আমতলী এখন ঢাকার গুলিস্তানে পরিণত হয়েছে। মঞ্জু মিয়া নামে আরেক পথচারী বলেন, ‘সরকার কি দেখে না মোগো দুর্ভোগ। সাপ্তাহিক বাজারের দিন বুধবার আমতলী চৌরাস্তা বটতলা, হাসপাতাল সড়কে যানজটের কারণে পথচারীদের চলাচলা প্রায় বন্ধ হয়ে যায়।’

ভুক্তভোগী যাত্রীরা জানান, আমতলী পৌর শহরের দক্ষিণপ্রান্তে অবস্থিত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পৌঁছাতেও সীমাহীন যানজটের মুখোমুখি হতে হয় রোগীদের। এতে হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা পেতেও দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তবে বেশি সমস্যায় পড়তে হয় যেসব পরিবহন ঢাকা থেকে রাত ৩টার দিকে আমতলী আসে। শহরসংলগ্ন বাসিন্দা যাত্রীদের তেমন দুর্ভোগ না হলেও গ্রামীণ জনপদের যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বাসচালক জাফর মিয়া বলেন, ‘আমতলীতে কোনো বাসস্ট্যান্ড না থাকায় রাস্তায় বাস রাখতে হয়। তাই আমাদের অনেক কষ্ট হয়। এখান থেকে বাস ঘোরাতে অনেক সমস্যা হয়।’ আমতলী পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান বলেন, বাস টার্মিনাল নির্মাণের জন্য পৌরসভার পরিকল্পনা রয়েছে। দাতা সংস্থার মাধ্যমে আর্থিক দিকটা আমি ব্যবস্থা করতে পারি। কিন্তু টার্মিনালের জন্য প্রয়োজনীয় জমি পৌরসভার নেই। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসনের কাছে জমি চেয়েছি। জমি পেলে পৌরসভা কর্তৃপক্ষই বাস টার্মিনাল তৈরি করবে।

"