স্মার্ট কার্ড বিতরণে টাকা আদায় নির্বাচন কর্মকর্তার নামে মামলা

প্রকাশ : ১০ জুন ২০১৮, ০০:০০

ঝালকাঠি প্রতিনিধি

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় স্মার্টকার্ড বিতরণে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের অভিযোগে উপজেলা নির্বাচন অফিসারসহ চারজনের বিরুদ্ধে ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার কাঁঠালিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া গ্রামের মো. রিয়াজুল ইসলাম বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে কাঁঠালিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জয়ন্তী রাণী চক্রবর্তী, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর রেজাউল জমাদ্দার, এমএলএসএস মজিবর রহমান ও কাঁঠালিয়ার আওরাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিটনের বিরুদ্ধে সমন জারি করেছে।

স্মার্টকার্ড বিতরণে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের অভিযোগে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের সূত্র ধরে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন থেকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে। জেলা নির্বাচন অফিসার মো. সোহেল সামাদ জানিয়েছেন, আগামী ১১ জুন এ বিষয়ে তদন্ত শুরু হবে।

মামলার অভিযোগে থেকে জানা যায়, গত ১০ থেকে ১২ মে পর্যন্ত কাঁঠালিয়া উপলোর ৬ নম্বর আওরাবুনিয়া ইউনিয়নে নাগরিকদের মধ্যে স্মার্টকার্ড বিতরণের নির্ধারিত তারিখ ছিল। উপজেলায় স্মার্টকার্ড তৈরি হয়েছে ৭৫ হাজার ৩২১ জনের মধ্যে। বিতরণ করা হয়েছে ৫৯ হাজার। বিতরণের সময় যারা নতুন কার্ড নিতে (যারা গত বছর ভোটার হয়েছেন) এসেছেন তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ২৩০ টাকা এবং যাদের পুরোনো জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেছে, তাদের কাছ থেকে ৩৪৫ টাকা করে আদায় করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার বাদী রিয়াজুল ইসলাম গত ৪ জুন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

"