৩৯ কোটি টাকা আদায়ে সিসিকের কোনো নেই উদ্যোগ

প্রকাশ : ১৩ মে ২০১৮, ০০:০০

সিলেট প্রতিনিধি

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) এলাকায় ২০১৭-১৮ অর্থবছরে হোল্ডিং ট্যাক্সের পরিমাণ ৪৬ কোটি ১৮ লাখ ৬৩ হাজার ৬৫৮ টাকা। অর্থবছরের বাকি আছে ৪৯ দিন। কিন্তু এখনো আদায় হয়নি ৩৯ কোটি আট লাখ ৪৪ হাজার ২৮১ টাকা। অর্থবছর শেষের দিকে এসে আদায় হয়েছে মাত্র সাত কোটি ১০ লাখ ১৯ হাজার ৩৭৭ টাকা। বকেয়া টাকা আদায়ে সিটি করপোরেশনের দৃশ্যমান কোনো উদ্যোগও প্রত্যক্ষ করা যাচ্ছে না।

সিসিকের কর শাখা জানায়, সিলেট সিটির ২৭টি ওয়ার্ডে বাণিজ্যিক, আবাসিকসহ ৫৩ হাজার ৫৬৮টি হোল্ডিং রয়েছে। তন্মধ্যে ৫২ হাজার ৭১৮টি বেসরকারি এবং ৮৫০টি সরকারি। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এসব হোল্ডিংয়ের ট্যাক্স ৪৬ কোটি ১৮ লাখ ৬৩ হাজার ৬৫৮ টাকা। কিন্তু ২০১৭ সালের ১ জুলাই থেকে ২০১৮ সালের ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত আদায় হয়েছে মাত্র সাত কোটি ১০ লাখ ১৯ হাজার ৩৭৭ টাকা। অভিযোগ রয়েছে, বেশিরভাগ বাণিজ্যিক হোল্ডিংধারীই তাদের ট্যাক্স পরিশোধ করেননি। বিভিন্ন অজুহাতে, বিশেষ করে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে এরা ট্যাক্স ফাঁকি দিচ্ছেন। অনাদায়ী ট্যাক্স আদায়ে সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট শাখা তৎপর নয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। তবে সিসিকের দাবি, তারা চেষ্টা করছেন ট্যাক্স আদায়ের। এ বিষয়ে সিসিকের সহকারী কর কর্মকর্তা (রাজস্ব) আখতার হোসেন সিদ্দীকি বলেন, ‘হোল্ডিং ট্যাক্স আদায়ের জন্য আমরা চেষ্টা করছি। কিন্তু গ্রাহকরা দিচ্ছি, দেব করে, রাজনৈতিক প্রভাবে কালক্ষেপণ করেন।’ সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘বকেয়া ট্যাক্স আদায়ে আমরা কঠোর অবস্থানে আছি। যারা ট্যাক্স পরিশোধ করবেন না, তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

 

"