সীতাকুন্ডে ইয়াবা আত্মসাতের চেষ্টায় ৫ পুলিশ প্রত্যাহার

প্রকাশ : ১৩ মে ২০১৮, ০০:০০

চট্টগ্রাম ব্যুরো

প্রায় ২২ হাজার ইয়াবা আত্মসাতের চেষ্টায় চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের বার আউলিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের দুই উপপরিদর্শকসহ (এসআই) পাঁচ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। গত শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে তাদের পুলিশ লাইনে পাঠানো হয়েছে। প্রত্যাহার হওয়া পাঁচ পুলিশ সদস্যরা হলেন হাইওয়ে পুলিশের বার আউলিয়া থানার এসআই মহিউদ্দিন, এসআই আদম আলী, কনস্টেবল মামুন, ইমাম হোসেন ও মোস্তফা।

জানা যায়, গত ৭ মে সোমবার বিকালে বারআউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের এসআই মো. মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের পুলিশ দল মহাসড়কে দায়িত্বরত অবস্থায় ২১ হাজার ৮০০ পিস ইয়াবাসহ গাজীপুর জেলার গাজীপুর সদর থানার বারান্ডা গ্রামের তসলিম উদ্দিন খোন্দকারের ছেলে মো. মোস্তাকিমকে (৩৬) আটক করে। কিন্তু অভিযোগ উঠে এসআই মহিউদ্দিন ইয়াবা পাচারকারীকে থানায় না এনে ছেড়ে দেন এবং জব্দ ইয়াবা আত্মসাত করেন। অপরদিকে মোস্তাকিমের ইয়াবা পাচারের খবর আগে থেকে ঢাকা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল পর্যবেক্ষণ করছিল। হাইওয়ে পুলিশের কাছ থেকে ছাড়া পেয়ে বাসটি ঢাকায় পৌঁছলে গোয়েন্দা পুলিশের দল বাসটিতে তল্লাশি চালিয়ে কোনো ইয়াবা না পেয়ে মোস্তাকিমকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তখন তিনি হাইওয়ে পুলিশ ইয়াবা আটক করে তাকে ছেড়ে দিয়েছে বলে জানায়। এরপর মোস্তাকিমকে নিয়ে ওই দিন রাতে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানায় উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা গেলে অভিযুক্ত পাঁচ পুলিশ সদস্যরা শনাক্ত হয়। হাইওয়ে পুলিশের কুমিল্লা জোনের পুলিশ সুপার মো. নজরুল ইসলাম বলেন, আসলে মাদক উদ্ধার করলে কিছু নিয়ম মানতে হয়। তারা সেসব নিয়ম মানেনি। বিষয়টি তিনদিন তদন্ত করে শুক্রবার রাতে সাময়িকভাবে তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। তাদেরকে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানা থেকে কুমিল্লা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করেছি।

তাদের বিরুদ্ধে আরও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

"