ইটভাটার বিষাক্ত গ্যাসে পুড়ে গেছে দেড়শ বিঘা বোরো ধান

প্রকাশ : ১২ মে ২০১৮, ০০:০০

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামে একটি ইটভাটার বিষাক্ত গ্যাসে দেড়শ বিঘা জমির উঠতি বোরো ধান পুরোপুরি পুড়ে গেছে। এতে ঐ এলাকার শতাধিক কৃষক ফসল হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, ভাটার ফায়ারম্যানের অদক্ষতার কারণে এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। সরেজমিনে জানা গেছে, কুড়িগ্রাম সদরের ঘোগাদহ ইউনিয়নের রসুলপুর ব্রহ্মতর গ্রামে কৃষি জমিতে এবারই প্রথম থ্রি-স্টার ব্রিকস্ নামে একটি ইট ভাটা চালু করে স্থানীয় কয়েকজন ব্যবসায়ী। গত ৫ এপ্রিল গভীর রাতে ভাটার ইট পোড়ানো শেষে ‘অদক্ষ’ ফায়ারম্যান ইটের চুল্লির মুখ খুলে দেওয়ায় বিষাক্ত গ্যাস বেরিয়ে ঐ এলাকার দেড়শ বিঘা জমির উঠতি বোরো ফলসসহ গাছপালা ও বাঁশ বাগান পুড়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্থ ১০ কৃষক প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, অনেক কষ্টে ধার-দেনা করে আমরা বোরো আবাদ করেছিলাম। ধান ঘরে তোলার পুর্ব মুহুর্তেই আমাদরে সব আশা ধুলিসাৎ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় ভাটা মালিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা আদৌ পাব, কি না এ নিয়ে সংশয়ে আছি আমরা। রসুলপুর ব্রহ্মতর গ্রামের কৃষানী হাসিনা বেওয়া প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, ধারদেনা ও অন্যের বাড়িতে কাজ করে বন্ধকী নিয়ে পৌনে দুই বিঘা জমিতে এবারে ধান আবাদ করেছিলাম। ভাটার বিষাক্ত গ্যাসে আমার ধানখেত পুড়ে গেছে। এ ক্ষেত থেকে খড় ছাড়া কিছুই মিলবে না। আগামী দিনগুলো কিভাবে পার দিবেন তা নিয়ে দুঃচিন্তায় পড়েছি। একই গ্রামের রাজু আহমেদ, হাসু মিয়া, ছকিনা বেগম, ফাতেমা বেগম জানান, গত বন্যায় এই এলাকায় এক ফোটা ধানও ঘরে তুলতে পারেননি তারা। এবার অনেক আশা ছিল ঘরে ধান তুলবেন। কিন্তু ইট ভাটার কারণে সে আশা গুড়েবালি হয়ে গেছে। এ অবস্থায় ভাটার মালিকের নিকট ক্ষতিপুরণ দাবি করছেন তারা।

থ্রি-স্টার ব্রিকস এর ম্যানেজার আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, আমরা এবারই প্রথম নতুন ভাটা দিয়েছি। ইট পোড়ানো শেষে ভাটার অদক্ষ ফায়ারম্যানের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। থ্রি-স্টার ব্রিকস্ এর মালিক পক্ষের প্রতিনিধি ইসমাইল হোসেন ইটভাটার গ্যাসের কারণে ধানখেত পুড়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, আমরা ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের সাথে আলোচনা করেছি। কৃষকদের ক্ষতিপুরণ দেওয়া হবে।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ঘোগাদহ ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা এসএম রেজাউল করিম জানান, ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ও বোরো ক্ষেতের পরিমাণ নিরুপন করে ইটভাটা মালিককে ক্ষতিপুরণ দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

 

"