ফুটপাতে ‘শ্রমিক অপেক্ষাগার’!

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নারায়ণগঞ্জ-ডেমরা আঞ্চলিক মহাসড়কের ফুটপাতে ‘শ্রমিক অপেক্ষাগার’ করেছে আদমজী ইপিজেড কর্তৃপক্ষ। এ জায়গার কিছু অংশের মালিক বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং সড়ক ও জনপদ কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে আদমজী ইপিজেড কর্তৃপক্ষ বলছে, ‘শ্রমিক অপেক্ষাগার’ করার জন্য তারা রেলওয়ের অনুমতি নিয়েছে। তবে সড়ক ও জনপদ কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেওয়া হয়েছে কি না তা নিয়ে কিছু বলেনি ইপিজেড কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপদ কর্তৃপক্ষ বলছে খোঁজ নিয়ে জানতে হবে।

সরেজমিনে জানা গেছে, কয়েকদিন আগে ১৫/৮ ফিটের একটি ‘শ্রমিক অপেক্ষাগার’ নির্মাণ কাজ শুরু করেছে আদমজী ইপিজেড কর্তৃপক্ষ। এতে তারা নারায়ণগঞ্জ-ডেমরা আঞ্চলিক মহাসড়কের ফুটপাতে দুই ফুট জায়গা দখল করে ‘অপেক্ষাগার’ নির্মাণ করেছে।

সিদ্ধিরগঞ্জে বাসিন্দা পথচারী কামরুজ্জামান বাদল জানান, রাস্তার পাশের ফুটপাতের উপর সেড নির্মাণ করা হচ্ছে। ফলে আমাদের চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হবে। তাই ফুটপাতের রাস্তা প্রশস্থ না করে বরং সরু করে ফেলা হচ্ছে। নিজেদের স্বার্থে তারা জনসাধারনের দুর্ভোগ বৃদ্ধি করে চলেছে। আদমজী রপ্তানী প্রক্রিয়াকরণ জোনের (এইপিজেড) মহাব্যবস্থাপক রুহুল আমিন বলেন, আমরা শ্রমিকদের জন্য ওয়েটিং সেড নির্মাণ করছি। শ্রমিকরা রোদে পোড়ে, বৃষ্টিতে ভিঁজে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করে। শ্রমিকদের সুবিধা না দেখলে ইনভেষ্টরদের আকৃষ্ট করা সম্ভব হয় না। ‘বাংলাদেশের রেলের জায়গা যার সামনে থাকে সেই ভোগ করে। আমরা রেল কতৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে সেড নির্মাণ করছি। সড়ক ও জনপথ কি কাজ করছে তা সকলেই দেখছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কি কাজ করতেছে তাও জনগণ দেখছে। কোমল বাস টার্মিনালে অবস্থা দেখেন। লক্কর ঝক্কর গাড়ি দিয়ে রাস্তাটা দখল করে রেখেছে। আমাদের শ্রমিকরা ঠিকমতো রাস্তায় চলতে পারছে না। যেখানে আমরা সেড নির্মাণ করছি সেই জায়গা আগে দখলদাররা দোকান দিয়ে রেখেছিল। আমাদের সেডের পাশে এখনও দখলদাররা রয়েছে। তাদের উচ্ছেদ করব খুব শিগগিরই।’

নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী আলিউল হোসেন বলেন, ওই জায়গাটায় কি চলছে তা জেনে জানাতে হবে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী কর্মকর্তা এএফএম এহতেশামুল হক বলেন, বেপজা আমাদের কোন কিছু জানায় নি। তারা জনসাধারণের চলাচলের পথ দখল করে থাকলে তাদের উচ্ছেদ করা হবে। তবে সড়কটি সড়ক ও জনপথের দায়িত্বে রয়েছে। তবুও সিটি কর্পোরেশন এলাকায় থাকার কারণে আমরা সড়কটি পরিদর্শন করে দেখব। এ বিষয়ে কথার বলার ঢাকায় রেলওয়ের ভূ-সম্পত্তি বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরার্মশ দেন ঢাকা বিভাগীয় রেল কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী। উল্লেখ সিদ্ধিরগঞ্জে নারায়ণগঞ্জ-ডেমরা আঞ্চলিক মহাসড়কের এ জায়গাটি ঢাকা বিভাগীয় রেলওয়ের অধীনে।

 

"