‘দুর্নীতিতে জেলখাটা দলের নেতা’ অপবাদ ঘোচাতে বিএনপি নেতার দলবদল!

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

পথঘাট, হাট-বাজার যেখানেই যান সেখানেই ‘দুর্নীতিতে জেলখাটা দলের নেতা’ বলে সবার কটূকথা শুনতে হতোÑএই অযুহাতে দলবদল করলেন লালমনিরহাটের সাবেক যুবদল নেতা ও জেলা বিএনপি সদস্য লুৎফর রহমান। তবে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে উপজেলা বিএনপির সভাপতি।

গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাপ্টিবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল আলমের হাতে ফুল দিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগে যোগদান করেন তিনি। লুৎফর রহমান আদিতমারী উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়ন যুবদলের দীর্ঘদিন সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি ওই ইউনিয়ন বিএনপি ও লালমনিরহাট জেলা বিএনপি সদস্য।

লুৎফর রহমান প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, দীর্ঘদিন বিএনপির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। সম্প্রতি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দুর্নীতি মামলায় আদালতে দ-প্রাপ্ত হয়ে জেলে যাওয়ায় সবাই আমাকে ‘জেলখাটা দলের নেতা’ বলে কটু কথা বলেন। এ কটুকথা থেকে মুক্তি পেতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলমের সাপ্টিবাড়ি বাজারের ব্যক্তিগত অফিসে ফুলের তোরা তুলে দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করি। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত শেখ হাসিনার পতাকা তলে থাকব। তার বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই বলেও দাবি করেন তিনি। লুৎফরের যোগদান প্রসঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম জানান, নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে প্রতিদিন অনেকেই আওয়ামী লীগে যোগদান করছেন। লুৎফর রহমান উপজেলা ও ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে হঠাৎ তার ব্যক্তিগত অফিসে এসে দলে যোগদান করেন।

তবে বিষয়ে উপজেলা বিএনপির সভাপতি আমিনুল ইসলাম প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, ‘সে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছে তো দিয়েছে, কি আর করব।’ তবে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তার যোগদানের সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সারপুকুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর জলিল সরকার, ওয়ার্ড সভাপতি শাহজাহান মিয়া, কমলাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন হেলুকারী, সাধারণ সম্পাদক অমুল্য কুমার রায়, সাপ্টিবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইউপি সদস্য সবুজ সরকার, ভেলাবাড়ি ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি আবুল কালাম, যুবলীগ নেতা রেজাউল করিম সোহাগ, খুশিনুর আলম প্রমুখ।

 

"