ইটভাটার টয়লেটে নিখোঁজ স্কুলছাত্রীর গলাকাটা লাশ

প্রকাশ : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০

গাইবান্ধা প্রতিনিধি

নিখোঁজের নয় দিন পর গাইবান্ধার এক ইটভাটার টয়লেট থেকে আঁখি নামে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের রাধাকৃষ্ণপুর গ্রামের জনৈক আয়ান মিয়ার ইটভাটার টয়লেট থেকে ওই ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়। আঁখি সদর উপজেলার ঘাগোয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ঘাগোয়া গ্রামের আক্কাছ আলীর মেয়ে।

ওই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মেয়েটির প্রতিবেশী দশম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গতকাল সন্ধ্যায় ইটভাটার শ্রমিকরা টয়লেট থেকে গন্ধ পায়। পরে টয়লেটের ঢাকনা সরিয়ে ওই মেয়েটির পা দেখতে পায় তারা। মেয়েটির গলায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদšেত্মর জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে পাঠায়। মেয়েটির বাবা আক্কাছ আলী লাশটি শনাক্ত করে বলেন, ‘নয়দিন ধরে আঁখি নিখোঁজ ছিল। তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করা হয়। কিন্তু কোথাও তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। প্রতিবেশী ওই কিশোর প্রায়ই তার মেয়েকে উত্যক্ত করতো।’ কারো সহায়তায় আঁখিকে ওই কিশোর হত্যা করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

গাইবান্ধা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ আরশেদুল হক জানান, গত ৫ ফেব্রুয়ারি আঁখি আক্তার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। এরপর সে আর বাড়িতে ফেরেনি। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে সদর থানাকে অবহিত করা হয়। আঁখির পরিবারের অভিযোগের পর স্থানীয় হাইস্কুলের ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। তাকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত চলছে।

"