খাবারের দাম বাড়ায় বিপাকে মাছচাষিরা

প্রকাশ | ১৪ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০

ময়মনসিংহ (মহানগর) প্রতিনিধি

দেশের মোট মাছের ১১ ভাগ উৎপাদন হয় ময়মনসিংহ জেলায়। আর পাঙ্গাসের মোট উৎপাদনের প্রায় ৫০ ভাগই হয় এখানে। গত অর্থবছরে ময়মনসিংহ জেলায় প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টন মাছ উৎপাদন হয়েছে; যা জেলার চাহিদার চেয়ে প্রায় চার গুণ বেশি।

এ জেলায় বাণিজ্যিক মাছের খামার রয়েছে প্রায় সাড়ে ৬ হাজার। আর মাছ চাষির সংখ্যা প্রায় সোয়া লাখ। বাণিজ্যিকভাবে মাছচাষ করে ভাগ্য বদলেছে হাজার হাজার মানুষের।

অবশ্য টানা কয়েক বছর লাভের মুখ না দেখলেও এবার ভালো দাম পাচ্ছেন বলে জানান মাছ চাষিরা। তবে খাবারের উচ্চমূল্য ও নিম্নমান নিয়ে বেকায়দায় রয়েছেন তারা। এছাড়া ব্যাংক থেকে ঋণ সুবিধা পান না বলে অভিযোগ প্রান্তিক চাষিদের।

শামসুর রহমান নামে এক মৎস্য খামারি বলেন, খাদ্যের দাম অনেকটাই বেশি। যার কারণে দেখা যায় যে পরিমাণ লাভ থাকার কথা তা থাকে না। মিলন মিয়া নামে আরেক চাষি বলেন, ভেজাল খাবারের কারণে অনেক চাষিই মার খাচ্ছে। এ বিষয়ে সরকারিভাবে একটা যদি কোন পদক্ষেপ নেওয়া যেন তাহলে খাবারের মান নিয়ন্ত্রণে আসত।

এদিকে কৃষির উপখাত হিসেবে কম দামে সেচ সুবিধা-ভর্তুকিসহ কৃষির সব সুবিধা মৎস্য খাতেও দেওয়ার দাবি করেছেন মাছচাষিরা। তারা বলছেন, এটি যেহেতু মানুষের মৌলিক চাহিদা খাদ্যের সঙ্গে সম্পৃক্ত সেহেতু সরকারের উচিত এ খাতটির দিকে দৃষ্টি দিয়ে চাষিদের প্রতি সহযোগীতার হাত বাড়ানো তাহলে এ খাতটি অনেক এগিয়ে যাবে।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদ বলেন, সঠিক পদ্ধতিতে মাছ চাষ না করায় অনেক ক্ষেত্রে লোকসানের মুখে পড়েন খামারিরা।

 

"