খুলনায় ৪১০ বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

খুলনা (মহানগর) প্রতিনিধি

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য মিড ডে মিল চালু করা হয়েছে অনেক আগেই। এবার মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য মিড ডে মিল চালু করা হবে। এই মিল খেতে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের খরচ হিসেবে বিদ্যালয়ে জমা দিতে হবে ২০ টাকা। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এই মিল চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যালয়সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, খুলনা জেলায় মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে ৪১০টি। বিদ্যালয়গুলোতে চালু নেই মিড ডে মিল। দুপুরে খাবারের ব্যবস্থা থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিখন-শেখানো কার্যক্রম ফলপ্রসূ হয় বলে ধারণা করছে শিক্ষা অধিদফতর। এজন্য মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে মিড ডে মিল চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে খুলনা জেলা শিক্ষা অফিসারকে আগ্রহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ১ আগস্ট মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) পরিচালক (মাধ্যমিক) ড. আবদুল মান্নান স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। জুলাইয়ের শেষ দিকে শিক্ষা অধিদফতর থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে খুলনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে। আগ্রহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকা শিক্ষা অধিদফতরে পাঠানোর নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছিল জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে। সেই হিসেবে মাধ্যমিক পর্যায়ের কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এই মিড ডে মিল চালু করার ক্ষেত্রে মানতে হবে কিছু শর্ত। শর্তগুলো হলোÑ শুধু আগ্রহী শিক্ষার্থীদের জন্য মিড ডে মিলের ব্যবস্থা করতে হবে। প্রতি মিলের জন্য আগ্রহী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনূর্ধ্ব ২০ টাকা গ্রহণ করতে হবে। প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যসম্মত রান্নার জায়গা এবং রান্না বাজার ও পরিবেশন করার জন্য জনবলের ব্যবস্থা থাকতে হবে।

খুলনা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী সোয়েব আক্তার জানান, স্কুলে আসার সময় প্রতিদিনই বাসা থেকে টিফিন দিয়ে দেয়। এই খাবার দিয়ে ভালোভাবে সময় চলে যায়। প্রাইমারির মতো মিড ডে মিল চালু হলে শিক্ষার্থীদের জন্য খুব ভালো হবে।

সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সোহানা ইসলাম জানান, তাদের বিদ্যালয়ে নিয়মিতই টিফিন দেওয়া হয়। এজন্য বছরের প্রথমে টাকা নিয়ে নেওয়া হয়।

খুলনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা খোন্দকার রুহুল আমিন জানান, বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে। সবার সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে তালিকা প্রস্তুত করে অধিদফতরে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া যারা আগ্রহী তাদের তালিকা এবং শিক্ষার্থীপ্রতি ২০ টাকা আদায়ের একটা বিষয় আছে। এজন্য যারা আগ্রহী তারা কী করবে; সে বিষয়েও সবার সঙ্গে আলোচনা করার মাধ্যমে এই মিল খুলনার প্রায় ১০০ স্কুলে চালু করা হয়েছে। আশা করছি, আগামীতে আরো প্রতিষ্ঠান এই মিড ডে মিল চালু করতে এগিয়ে আসবে।

 

"