খুলনায় চিকিৎসকদের মারধর দুই ঘণ্টা কর্মবিরতি

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

খুলনা (মহানগর) প্রতিনিধি

খুলনায় রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে চিকিৎসককে মারধরের ঘটনায় দুই ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করেছে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের মালিক ও চিকিৎসকরা। গতকাল সোমবার বেলা ১১টা থেকে শুরু হওয়া এই কর্মবিরতি চলে বেলা ১টা পর্যন্ত। একই সঙ্গে দুপুর ১২টায় মহানগরীর সাতরাস্তার মোড়ে শহীদ মিলন চত্বরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন চিকিৎসকরা।

বাংলাদেশ প্রাইভেট প্র্যাক্টিশনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমপিএ) ও বাংলাদেশ প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএইচসিডিওএ) এই কর্মসূচির আয়োজন করে। চিকিৎসক নেতারা বলেন, অবিলম্বে এ ঘটনায় দোষীদের শাস্তির ব্যবস্থা করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। এ সময় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আউটডোরে টিকিট প্রদান ও চিকিৎসাসেবা বন্ধ ছিল। এ ছাড়া বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতেও চিকিৎসাসেবা বন্ধ ছিল। হঠাৎ করে চিকিৎসকদের কর্মবিরতিতে ভোগান্তিতে পরেন সাধারণ রোগী ও তার স্বজনরা।

উল্লেখ্য, গত শনিবার রাতে রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র নগরীর খালিশপুর ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সিটি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র রিপনের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে কর্তব্যরত চিকিৎসককে ধরে নিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে মারধর করে রোগীর সহপাঠী ও স্বজনরা। জরুরি অবস্থায় এ চিকিৎসককে ভর্তি করা হয়। ডাক্তার সুজাউদ্দিন সোহাগের ওপর হামলার অভিযোগে দুজন আটক হয়েছে। আটকরা ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরো পাঁচজনের নাম বলেছে। ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ রোগীর স্বজনদের, তবে চিকিৎসকরা বলছে, অতিরিক্ত মাদকের কারণে হার্ট অ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে।

"