রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

প্রকাশ : ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর বাড্ডা, শান্তিনগর ও বিমানবন্দর এলাকায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় সোহেল (৩০), রিনভি (২৫) ও সেলিম (৩৩) নামে তিনজন নিহত হয়েছেন। ঈদের দিন থেকে গত মঙ্গলবার পর্যন্ত এ তিনটি দুর্ঘটনা ঘটে।

পল্টন থানার এসআই শাহ আলম জানান, সোহেলের বাবার নাম নুরুল আলম। থাকত ভাটারা নতুনবাজার এলাকায়। বাবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দেখাশোনা করতেন তিনি। গত সোমবার রাত ১২টার দিকে দূর সম্পর্কের ভাই কবিরকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলে ঘুরছিলেন তারা। শান্তিনগরে ফ্লাইওভার ব্রিজ থেকে নেমে লাজফার্মার সামনের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে তারা মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যায়। সোহেল গুরুতর আহত হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেওয়ার পর রাত ১টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে, নিহত রিনভির চাচা মাসুদ জানান, ভাটারা নতুনবাজার এলাকায় থাকতেন রিনভি। তার স্বামীর নাম কাবুল। ঈদের দিন রাতে উত্তর বাড্ডা ফুজি টাওয়ারের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় পিকআপের ধাক্কায় ছিটকে পড়েন রাস্তায়। ওই সময় একটি চলন্ত বাস তাকে পিষ্ট করে দেয়। এতে আহত হন স্বামী, সন্তানসহ তিনজন। পরে তাদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে গভীর রাতে রিনভিকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। বাড্ডা থানার এসআই শহিদুল আলম ঘটনার পরপরই বাসটিকে জব্দ করা হলেও পিকআপটি পালিয়ে যায়।

রাজধানীর বিমানবন্দর বাস স্টেশনে গত মঙ্গলবার বিকালে একটি বাসে ওঠতে গিয়ে অপর বাসের চাপায় মো. সেলিম (৩৩) নামে যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত সেলিম উত্তরা ৪নং সেক্টরের কর অঞ্চল-৯ এর অফিস সহকারী ছিলেন। দক্ষিণ খান থানা এলাকার দক্ষিণপাড়া নামক স্থানে তার বাসা।

উদ্ধারকারী পথচারীর বরাত দিয়ে নিহতের ভাই আবু সায়েম বলেন, বিকাল সাড়ে ৪টার সময় সেলিম বিমানবন্দর বাস স্টেশনে একটি বাসে ওঠার সময় পাশ দিয়ে আসা আরেকটি বাস চাপা দেয়। এতে সেলিম দুই বাসের মাঝে চাপা পরে। পরে পথচারীরা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উত্তরা আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে নিহতের ভাই উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

"