কোরবানির বর্জ্য অপসারণে সবাইকে যতœশীল হতে হবে : সাঈদ খোকন

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

কোরবানির বর্জ্য অপসারণে নগরবাসীর সহায়তা চাইলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। গতকাল শুক্রবার রায়সাহেব বাজার মোড়সংলগ্ন ধোলাইখালে কোরবানির পশুর হাট পরিদর্শন এবং মশার লার্ভা ধ্বংস ও ফগিং কার্যক্রম পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেছেন, এ ব্যাপারে সবাইকে যতœশীল হতে হবে।

মেয়র সাঈদ প্রতিবারের মতো এবারও কোরবানির প্রথম দিনের বর্জ্য ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণ করা হবে উল্লেখ করে নগরবাসীর নির্দিষ্ট স্থানে পশু কোরবানি দেওয়ার আহ্বান জানান। তবে কেউ যদি কোনো কারণে নির্দিষ্ট স্থানের পরিবর্তে নিজ আঙিনা বা সুবিধাজনক স্থানে কোরবানি করেন, তাহলে কোরবানির পশুর বর্জ্য ড্রেনে না ফেলে করপোরেশনের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে দেওয়া বর্জ্য ব্যাগে ভরে মুখ বন্ধ করে সড়কের পাশে রাখেন। যাতে করে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা সহজেই এ ময়লা অপসারণের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময়ের মধে নগরী পরিচ্ছন্ন করতে পারে। এ ছাড়া কোরবানির স্থান স্যাভলন পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলতে বলেন, যাতে পরিবেশ দূষণ না ঘটে। কোরবানির দ্বিতীয় দিনের বর্জ্য দিনশেষে রাতের মধ্যে এবং তৃতীয় দিনের বর্জ্য রাতের মধ্যেই অপসারণ করা হবে। বরাবরের মতো এবারও নগরবাসীকে করপোরেশনের পাশে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

পরিচ্ছন্নতার কাজে কোনো গাফিলতি সহ্য করা হবে না জানিয়ে তিনি সংশ্লিষ্টদের আন্তরিকভাবে কাজ করতে বলেন, অন্যথায় দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে উল্লেখ করেন।

তিনি এ পশুর হাট সরেজমিনে গিয়ে ঘুরে দেখেন। পশু বিক্রেতাদের হাট এবং নিরাপত্তা নিয়ে কোনো সমস্যা আছে কি না, সে ব্যাপারে খোঁজখবর নেন। একইসঙ্গে হাটে আগতদের মশার উপদ্রব থেকে রক্ষাকল্পে নিয়োজিত কমিটির লোকজনকে ডেকে নিয়ে লার্ভিসাইডিং, ফগিং এবং হাটের নিয়মিত পরিচ্ছন্নতা কাজ চালাতে বলেন। হাট পরিদর্শনকালে মেয়রের সঙ্গে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তা?ফিজুর রহমানসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা স্থানীয় রোভার স্কাউট নেত্রী শেলী নূর, মন্ত্রণালয় থেকে ডেঙ্গু এবং পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম তদারকির দায়িত্বে নিয়োজিত কর্মকর্তা এবং এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। হাটে পশুর আমদানি ভালো এবং কোন সমস্যা নেই বলে পশু ব্যাপারীরা মেয়র সাঈদ খোকনকে অবহিত করেন।

"