ঈদ শেষে ফিরতি পথে রাজশাহীতে ভোগান্তি

প্রকাশ : ০৯ জুন ২০১৯, ০০:০০

রাজশাহী ব্যুরো

ঈদের ছুটি শেষ হচ্ছে আর রোববার। তাই গতকাল শনিবারের মধ্যেই ঢাকায় ফিরতে চেষ্টা করেছেন সরকারি চাকরিজীবীরা। কিন্তু ফিরতি পথে ভোগান্তিতে পড়েছেন রাজশাহী, নওগাঁ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের যাত্রীরা। কেননা, রাজশাহীতে বাস ও ট্রেনের কোনো টিকিট নেই। ফলে যারা আগাম টিকিট কাটেননি, তারা গতকাল শনিবার বাস টার্মিনাল ও রেলস্টেশনে গিয়ে পড়েছেন বিপদে।

গতকাল শনিবার সকালে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন ও শিরোইল ঢাকা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে এমন চিত্রই দেখা গেছে। রাজশাহী ছাড়াও নওগাঁ এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের যাত্রীদের ঢাকা যেতে হয় এখান থেকেই। শনিবার তিন জেলার ঢাকাগামী মানুষের ভিড় দেখা গেছে বাস টার্মিনাল ও রেলওয়ে স্টেশনে। তবে এই যাত্রীদের বেশির ভাগের কাছেই ছিল না বাস কিংবা ট্রেনের কাটা আগাম টিকিট।

রাজধানীমুখী যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঢাকাগামী ট্রেনগুলোর আগামী এক সপ্তাহের জন্য কাউন্টারে কোনো টিকিট নেই। শ্যামলী, ন্যাশনাল, দেশ ট্রাভেলস, একতাসহ দ্রুতগতির অন্য বাসগুলোর টিকিটও বিক্রি হয়ে গেছে আগাম। যারা রাজশাহী আসার আগেই আত্মীয়স্বজনের মাধ্যমে আগাম টিকিট কেটে রেখেছিলেন, শুধু তারাই এখন পর্যায়ক্রমে কর্মস্থলে ফিরতে পারছেন।

বাকিদের রাজধানী ফিরতে দুর্দশার অন্ত নেই। টিকিট না পেয়ে বেশির ভাগ যাত্রীই লক্কড়ঝক্কড় লোকাল বাসে চাপছেন। তবে এসব বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের। তাই যাদের একটু সামর্থ্য আছে, তারা বাধ্য হয়ে মাইক্রোবাস ভাড়া করে ঢাকার উদ্দেশে রাজশাহী ছাড়ছেন। ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকায় ঢাকা যাচ্ছে মাইক্রোবাসগুলো। অনেকেই একে অপরের সঙ্গে পূর্ব পরিচিত না হলেও বাস টার্মিনালে ৭-৮ জন ব্যক্তি একসঙ্গে হয়ে এসব মাইক্রোবাস ভাড়া করছেন। বৃহস্পতিবার থেকেই রাজশাহী অঞ্চলের কর্মজীবীরা ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছেন। তবে ঈদের পর প্রথম কর্মদিবস শুরুর আগের দিন শনিবার রাজশাহী রেলস্টেশন ও বাস টার্মিনালে ভিড় ছিল সবচেয়ে বেশি।

 

"