ঢেলে সাজানোর প্রস্তাব বিশেষজ্ঞদের

ডেঞ্জার জোন পুরান ঢাকা

প্রকাশ : ০৮ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

নানা সমস্যার আবর্তে ঘুরপাক খাচ্ছে ষোড়শ শতকের বাংলার রাজধানী পুরান ঢাকা। এখানে ডেঞ্জার জোনে বসবাস করছেন প্রায় ৩০ লাখ মানুষ। জীবনের ঝুঁকি নিয়েই তারা পরিবার-পরিজনসহ বাস করছেন। একদিকে শত বছরের পুরনো ভবন অন্যদিকে অপরিকল্পিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। যার ফলে ঝুঁকির সব মানদ-ে নগরীর ঐতিহ্যবাহী এই অংশ রয়েছে অতি ঝুঁকিতে।

পুরান ঢাকার ভবনগুলো দেখে বোঝার উপায় নেই ভবনগুলো একটির থেকে আরেকটি আলাদা। এর মাঝে জীর্ণশীর্ণ হয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে শত বছরের অসংখ্য পুরনো ভবন। যার আভিজাত্য ও সৌন্দর্য ঢাকা পড়ে গেছে যুগ-যুগের অযতœ আর অবহেলায়। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিল্ডিং কোড না মেনে বহুতল ভবন তৈরি। সামান্য জায়গা পেলেই তৈরি করা হচ্ছে এসব ভবন।

আলো বাতাস তো দূরের কথা, বড় কোনো দুর্যোগে বের হয়ে আসার কোনো উপায় নেই বেশিরভাগ ভবন থেকে। এসব নতুন পুরনো ভবনেই রয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, রাসায়নিক কারখানা আর গুদাম। যা এই এলাকার মানুষের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকির কারণ।

রাজউকের তথ্য অনুযায়ী, রাজধানীর পুরান ঢাকায় ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের সংখ্যা ১ হাজার ৫৭৩টি। বিল্ডিং কোড না মানায় ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত আরো ৫ হাজার ভবন। সম্প্রতি ১০৬টি মার্কেটসহ ১৭৩টি ভবনকে অগ্নি নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে ফায়ার সার্ভিস। আর ৫৩টি শপিংমল অতি ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে তালিকাভুক্ত।

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যন্স) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বাণিজ্য এবং আবাসিক ভবন আলাদা থাকলে ঝুঁকির পরিমাণ অনেক কম থাকত।’

নগরীর ঐতিহাসিক এই অঞ্চলকে বসবাসযোগ্য করতে হলে ঢেলে সাজানোর বিকল্প নেই বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। স্থপতি অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, ‘পুনঃউন্নয়ন খুব কঠিন কাজ। ওইখানেও লোকজন সরাতে হবে। এখানে সামাজিক সাংস্কৃতিক পুনঃস্থাপনও লাগবে।’

তবে উন্নয়ন, বিকাশ, ব্যবস্থাপনা ও সুশাসনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই ঐতিহাসিক গুরুত্বকে প্রাধান্য দিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে বলে মনে করেন প্রবীণ চিত্রশিল্পী হাশেম খান। তিনি বলেন, ‘যারা আইন করবেন, সে আইনগুলো যারা জানেন, ইতিহাস যারা জানেন, প্রতœতত্ত্ব রক্ষার বিজ্ঞান যারা জানেন, তাদের নিয়েই আলোচনা করে এগুলো রক্ষার আইন প্রণয়ন করতে হবে।’ তিনি মনে করেন, পুরান ঢাকার ঐতিহাসিক চরিত্রকে পুঁজি করে ঢাকা মহানগরী নিজেকে প্রতিষ্ঠা করতে পারে আপন স্বকীয়তার ওপর ভর করে।

"