প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ ও লিখিত ঘোষণা দাবি

এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের অবস্থান কর্মসূচি

প্রকাশ : ২৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাদের মানবেতর জীবনযাপনের কথা তুলে ধরতে চান নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা। এরপর তিনি যে নির্দেশনা দেবেন, তাই মেনে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের অবস্থান কর্মসূচিতে তিনি কথা বলেন।

কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া শিক্ষক-কর্মচারীরা বলছেন, বারবার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও তাদের এমপিওভুক্তির দাবি মানা হয়নি। তাই এবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ ও সুনির্দিষ্টভাবে লিখিত আকারে এমপিওভুক্তির ঘোষণা না আসা পর্যন্ত তারা প্রেস ক্লাবের সামনেই অবস্থান করবেন।

মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলন করছি। আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছেন। অথচ এক বছর পার হলেও দাবি বাস্তবায়নের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আমাদের মানবেতর জীবনযাপনের কথা তুলে ধরব। তিনি আমাদের যে নির্দেশনা দেবেন, তাই মেনে নেওয়া হবে।

ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায় বলেন, ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব জানিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী দাবি মেনে নিয়েছেন। অনশন ভেঙে আমাদের ঘরে ফিরে যেতে বলেছেন। এরপর জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধূরীসহ কয়েকজন এসে আমাদের বাড়ি ফিরে যেতে বলেন। কিন্তু এক বছর পার হলেও দাবি বাস্তবায়ন করা হয়নি। প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় কিন্তু তা পালন করা হয় না। এ কারণেই আমরা আবারও সমবেত হয়েছি।

তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় এমপিওভুক্তির দাবিতে ফের রাজপথে নেমেছি। নির্ধারিত কর্মসূচি হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের উদ্দেশ্যে পদযাত্রা শুরু করলে পুলিশ আটকে দেয়। তাই আমরা প্রেস ক্লাবসংলগ্ন কদম ফোয়ারায় অবস্থান করছি। এখানেই রাত্রিযাপন করেছেন কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী।

 

"