খুলনায় ইজিবাইক লাইসেন্স ফরম বিতরণ শুরু

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

খুলনা প্রতিনিধি

খুলনা মহানগরীতে ইজিবাইক চলাচলের অনুমতি প্রদান সংক্রান্ত আবেদন ফরম বিতরণ শুরু হয়েছে। ইজিবাইক চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও শৃঙ্খলা রক্ষার লক্ষ্যে সোমবার সকাল ১০টায় নগর ভবনে একজন ইজিবাইক চালকের হাতে ফরম তুলে দেয়ার মধ্য দিয়ে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক। যা চলবে আগামী ১৫ দিন। প্রতি ফরমের মূল্য ৫০০ টাকা। চার বছর পর নগরীতে ইজিবাইক চলাচলের লাইসেন্স দেওয়া শুরু হলো।

কেসিসির এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ইজিবাইক মালিক-চালকরা। এতে নগরীতে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসছে বলে মনে করছেন নগরবাসী। তবে নগরীর স্থায়ী বাসিন্দা হওয়ার ক্ষেত্রে মালিকদের ব্যাপারে কড়াকড়ি করলেও চালকদের ব্যাপারে নিয়মটা শিথিল করার দাবি জানান চালকরা। ইজিবাইক লাইসেন্সের আবেদন ফরম মূল্য ৫০০ টাকা ও ইজিবাইক লাইসেন্সর মূল্য ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। এটা একজন চালকের জন্য অনেক বেশি বলে মনে করছেন অনেক চালক।

কেসিসির সিনিয়র লাইসেন্স অফিসার এস কে এম তাছাদুজ্জামান বলেন, অফিস চলাকালীন নগর ভবন থেকে এ ফরম সংগ্রহ করা যাচ্ছে। ইজিবাইক লাইসেন্স ফরম নিতে গেলে চালক বা মালিককে নগরীর স্থায়ী বাসিন্দার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি, তিন কপি পাসপোর্ট সাইসের ছবি, ইজিবাইকের মালিকানার কাগজপত্রসহ আরো কিছু আনুষঙ্গিক কাগজপত্র লাগছে। এসব কাগজপত্র গেজেটেড অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত করে ফরমের সঙ্গে সংযুক্ত সাপেক্ষে জমা দিতে হচ্ছে।

তিনি জানান, ইজিবাইক মালিক-চালকদের বিষয়টি অবগত করতে এ ব্যাপারে সোমবার থেকে নগরীতে কেসিসির পক্ষ থেকে মাইকিং করা হচ্ছে। ১০ হাজার ফরম বিক্রির টার্গেট নেওয়া হয়েছে। ফরম বিক্রি শেষে তা যাচাই-বাছাই করে মেয়র প্রকৃত মালিক-চালকদের মাঝে ইজিবাইক চলাচলের অনুমতিপত্র দেবেন। এর আগে গত ১৫ জানুয়ারির পর থেকে খুলনা নগরীতে ইজিবাইক প্রবেশ করা ও বের হওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)। এজন্য নগরীতে আটটি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। যার কাজ এখনো চলছে। যানজট নিয়ন্ত্রণ না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে।

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালের জানুয়ারি থেকে নগরের সড়কগুলোতে ব্যাটারিচালিত এ যানটি চলাচল শুরু করে। যানটি দ্রুত নগরে ছড়িয়ে পড়ায় যানজট বেড়ে যায়। গাড়ি চালানোয় চালকদের ন্যূনতম দক্ষতা না থাকায় এবং নিয়ন্ত্রণহীনভাবে চলাচলের কারণে পথচারী ও যাত্রীদের প্রায়ই দুর্ঘটনার মুখে পড়তে হয়।

 

"