সাদ অনুসারীদের বয়কটের দাবি বেফাকের

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

তাবলিগ জামাতে সাদ অনুসারীদের বয়কটের দাবিতে হেফাজত আমিরের নেতৃত্বাধীন বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) আহ্বানে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন হেফাজত, কওমি মাদরাসা ছাত্র-শিক্ষক ও সাদবিরোধী তাবলিগ কর্মীরা। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর রামপুরা, মিরপুর, মোহাম্মদপুর, লালবাগসহ বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন করেন তারা। গত বৃহস্পতিবার সকালে হেফাজত ও সাদবিরোধী তাবলিগের মুরুব্বিদের নিয়ে বৈঠক করে বেফাক। সেই বেঠকে সিদ্ধান্ত হয় শুক্রবার সারাদেশের প্রত্যেক মসজিদে জুমার সময় টঙ্গী মাঠে হামলা সম্পর্কে আলোচনা করা এবং দেশব্যাপী জুমার নামাজের পর স্থানীয়ভাবে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করার।

দুপুর ২টার দিকে রাজধানীর মিরপুর ১ নম্বরের আশপাশের মাদ্রাসার শিক্ষক-ছাত্র, মসজিদের ইমাম ও সা’দবিরোধী তাবলিগকর্মীদের মানববন্ধন করতে দেখা যায়। মাজার রোড থেকে সনি হল পর্যন্ত রাস্তার পাশে তারা এ মানববন্ধন করেন। এছাড়া, সা’দবিরোধীদের বয়কটের দাবি জানিয়ে লিফলেট বিতরণ করা হয়। টঙ্গী মাঠে সংর্ঘষের জন্য সাদ অনুসারীদের দায়ী করে তাদের ফাঁসির দাবিতে প্ল্যাকার্ড হাতে দেখা যায় মাদরাসা ছাত্রদের। কল্যাণপুর জামেয়া এমদাদিয়া মাদ্রাসার শিক্ষা সচিব আব্দুল জব্বার বলেন, ‘আজকের মানবন্ধনে আশেপাশের মাদ্রাসার শিক্ষক-ছাত্র, তাবলিগের কর্মীরা এসেছেন। আমরা টঙ্গীতে হামলার জন্য দায়ীদের বিচার চাই।’

রামপুরায় বিটিভি সেন্টার রোডেও আশেপাশের সা’দবিরোধী তাবলিগকর্মী, মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকরা মানববন্ধনে অংশ নেন। মানববন্ধনে দারুল উলুম জামিয়া আহলিয়া বনশ্রীর মুহতামিম ইয়াহইয়া মাহমুদ বলেন, ‘টঙ্গী ইজতেমা মাঠে হামলা পূর্বকল্পিত। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। দ্বীনের কাজ ওলামায়ে কেরামের নেতৃত্বেই চলবে। এ ছাড়া গাজীপুর চৌরাস্তা ও টঙ্গীর কলেজ গেট এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন মাওলানা জুবায়েরপন্থি মুসল্লিরা। জুমার নামজের পর টঙ্গীর বিভিন্ন মসজিদ মাদরাসা থেকে হাজার হাজার মুসল্লির ঢল নামে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে। তারা টঙ্গী স্টেশন রোড থেকে কলেজ গেট পর্যন্ত তিন কিলোমিটার সড়কে অবস্থান নেয়। ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের দুই পাশের সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

"