খুলনায় এলজিইডির অভূতপূর্ব উন্নয়ন

প্রকাশ : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

খুলনা ব্যুরো

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) খুলনায় বিগত দশ বছরে পূর্বের তুলনায় দ্বিগুণের বেশি কাজ করেছে। পল্লী উন্নয়ন সড়ক থেকে শুরু করে নতুন করে অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা নিবাস নির্মাণ বাদ যায়নি। গৃহীত প্রকল্প দ্বিগুণের বেশি হলেও অর্থের পরিমাণে তা পাঁচগুণের বেশি। কর্মকর্তারা বলেছেন উন্নয়নমূলক কাজের গতি অব্যাহত রয়েছে।

এলজিইডি খুলনা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সাল পর্যন্ত খুলনায় পল্লী সড়ক উন্নয়ন হয় ৫৪৭ কিলোমিটার। কিন্তু ২০১৮ সাল পর্যন্ত তা উন্নীত হয় এক হাজার ১৮৩ কিলোমিটারে। জেলায় বর্তমানে ২৩২ কিলোমিটার গ্রামীণ সড়ক উন্নয়ন এবং ১০৮ কিলোমিটার গ্রামীণ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণাধীন রয়েছে। ২০০৯ সাল পর্যন্ত ১০০ মিটারের উপরে কোন বৃহৎ সেতু নির্মাণ না হলেও বর্তমানে রয়েছে দুইটি। আগে ৮০৬ মিটার সেতু/কালভার্ট থাকলেও বর্তমানে উন্নীত হয়েছে এক হাজার ৬৩৪ মিটারে। জেলায় ৯৮৯ মিটার সেতু/কালভার্ট নির্মাণাধীন রয়েছে। উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স আগে না থাকলেও বর্তমানে তিনটি রয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স আগে সাতটি থাকলেও বর্তমানে রয়েছে ১৯টি। বর্তমানে জেলায় দুইটি উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ও দুইটি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হচ্ছে। ২০০৯ সালে ১৩টি গ্রোথ-সেন্টার ও হাট-বাজার থাকলেও বর্তমানে ৩৫টি। সাইক্লোন শেল্টারের সংখ্যা ১৫টি হলেও ২০১৮ সালে তা উন্নীত করা হয়েছে ৭৬টিতে। প্রাথমিক বিদ্যালয় ও শিক্ষা অবকাঠামো আগে ১৮৫টি হলেও বর্তমানে তা দাঁড়িয়েছে ৪২২ টিতে। পূর্বে এক হাজার ৯৩৪ হেক্টর পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা করা হলেও ২০১৮ সালে তা উন্নীত করা হয়েছে সাত হাজার ৫০ হেক্টরে। ২০০৯ সালে রেগুলেটর একটি থাকলেও বর্তমানে দুইটি। খাল খনন আগে ৮ কিলোমিটার করা হলেও তা বর্তমানে ৩৫ কিলোমিটার। আগে এক কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণ করা হলে তা বর্তমানে নির্মাণ করা হয়েছে তিন কিলোমিটার। ২০০৯ সাল পর্যন্ত কোন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা নিবাস নির্মাণ করা হয়নি। বর্তমানে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স সাতটি ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা নিবাস ২৪টি নির্মাণ করা হয়েছে। সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ ২০০৭-০৮ অর্থবছরে ১৫২ কিলোমিটার করা হলেও বর্তমানে ৪৪৭ কিলোমিটারে উন্নীত করা হয়েছে।

খুলনা জেলায় ২০০৭-০৮ অর্থবছরে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি ২৯ দশমিক ১২ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকলেও ২০১৭-১৮ অর্থবছরে তা বৃদ্ধি করা হয়েছে ১৫৬ দশমিক ৫৯ কোটি টাকায়। পরিসংখ্যান অনুযায়ি সকল প্রকল্প আগের তুলনায় দ্বিগুণের বেশি। কিন্তু অর্থের পরিমাণে এ তুলনায় দাঁড়িয়েছে পাঁচগুণের বেশি।

এলজিইডি খুলনা জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী রকিব-উল-আলম বলেন, আগের তুলনায় উন্নয়নমূলক কার্যক্রম ও বরাদ্দ তুলনামূলক অনেক বেশি। জেলায় প্রকল্প বাস্তবায়নের পাশাপাশি আরও নতুন নতুন প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। উন্নয়ন কাজের গতি অব্যাহত রাখা হয়েছে।

"