ইয়াবা পাচারের ঘটনায় এসআই গ্রেফতার

প্রকাশ : ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রামে ফার্নিচার বোঝাই মিনি ট্রাকে ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বদরুদ্দৌজা মাহমুদকে গতকাল শনিবার গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। র‌্যাবের পক্ষ থেকে মিরসরাই থানায় দায়ের করা মাদক মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে ফার্নিচার বহনকারী ট্রাক চালক মো. মোক্তার ও সহকারী মো. সবুজকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এসআই বদরুদ্দৌজাকে গত একমাস আগে সাময়িক বরখাস্ত করে ঢাকা জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা থেকে শাস্তিমূলক বদলি করে সিএমপিতে পাঠানো হয়। তিনি সিএমপির পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে একটি বিভাগীয় মামলা রয়েছে। এর আগে গত শুক্রবার ভোরে মিরসরাই থানার রেদোয়ান পেট্রল পাম্প সংলগ্ন এলাকা থেকে একটি মিনি ট্রাকসহ চালক মো. মোক্তার ও সহকারী মো. সবুজকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে মিনি ট্রাকে থাকা ফার্নিচারের (স্টিলের ফাইল কেবিনেট) ভেতর তালাবদ্ধ করে লুকানো ২৯ হাজার ২৮৫টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মিরসরাই থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয় র‌্যাবের পক্ষ থেকে। ট্রাকচালক ও সহকারী ইয়াবাগুলো নিয়ে চট্টগ্রাম নগরের লালখানবাজার হাইলেভেল রোডের এসআই মো. বদরুদ্দৌজা মাহমুদের বাসা থেকে ঢাকার মোহাম্মদপুরে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এর আগে ২৯ আগস্ট ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে এসআই বদরুদ্দৌজার ফার্নিচার ও মালামাল চট্টগ্রামের লালখানবাজার হাইলেভেল রোডে নিয়ে আসেন ট্রাকচালক মো. মোক্তার ও সহকারী মো. সবুজ।

পর দিন ৩০ আগস্ট রাতে সেই ট্রাক ঢাকায় ফেরত যাওয়ার সময় ট্রাকে স্টিলের ফাইল কেবিনেট তালাবদ্ধ করে তুলে দেন এসআই বদরুদ্দৌজা এবং এটি মোহাম্মদপুরে পৌঁছে দেওয়ার জন্য বলেন। ইয়াবা উদ্ধারের পর দুইজনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী এসআই বদরুদ্দৌজাকে আটক করে শুক্রবার খুলশী থানা পুলিশের হেফাজতে তুলে দেন সিএমপি পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার শাকিলা সুলতানা।

মিরসরাই থানার ওসি মো. সাইরুল ইসলাম বলেন, এসআই বদরুদ্দৌজা মাহমুদকে আমরা শনিবার দুপুরে গ্রেফতার দেখিয়েছি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।

 

"