রিজার্ভ ট্যাঙ্ক বিস্ফোরণে নানা-নাতনির মৃত্যু

প্রকাশ : ২৭ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর পল্লবীতে পানির রিজার্ভ ট্যাঙ্ক বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধদের মধ্যে দুজন মারা গেছেন। তারা হলেন সুরত আলী (৬০) ও তার নাতনি চার বছর বয়সী মিলি। গতকাল রোববার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে বার্ন ইউনিটের মৃত্যু হয় ৭২ শতাংশ দগ্ধ নানার। এর আগে গত শনিবার বিকেলের দিকে মৃত্যু হয় শরীরের ৮৫ শতাংশ দগ্ধ হওয়া মিলির। ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাবুল মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে পল্লবীর ই-ব্লকের ৪ নম্বর লাইনের জনৈক মোশারফ হোসেনের ছয়তলা বাড়ির নিচতলায় রিজার্ভ ট্যাঙ্ক বিস্ফোরণে ৯ জন দগ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সুরত আলী ও মিলি ছাড়া দগ্ধ অন্যরা হলেন- সুরত আলীর স্ত্রী বেদানা বেগম (৫০), ছেলে রাব্বি (২১), রাব্বির স্ত্রী লাবণী (১৮), সুরত আলীর মেয়ে আলেয়া (৩০), বাড়ির মালিক মোশারফ হোসেন (৪৫), তার ছেলে জিসান (১৮) ও আত্মীয় আউয়াল হেসেন বাবু (৩২)।

নিহত সুরত আলীর ছেলে শাকিল জানায়, ঘটনার সময় ঈদের জন্য কাঁচাবাজার করতে তিনি বাজারে গিয়েছিলেন। বাজার থেকে ফেরার পর দেখতে পেয়ে দগ্ধদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে শাকিল আরো জানান, তার মা বেদেনা ১৭ শতাংশ, বোন আলেয়া ৫৮ শতাংশ, বড় ভাই রাব্বি ৭৮, ভাবী লাবণী ৮৮ ও বাড়ির মালিক মোশারফ হোসেন শরীরের ৬০ শতাংশ পোড়া নিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন। বাকি দুজন আশঙ্কামুক্ত।

"