২১ আগস্ট হামলা

রেজ্জাকুলের যুক্তিতর্ক শেষ, পিন্টুর শুরু

প্রকাশ : ১৯ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

আদালত প্রতিবেদক

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে বর্বরোচিত ও নৃশংস গ্রেনেড হামলা মামলায় প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদফতরের (ডিজিএফআই) সাবেক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল (অব.) রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরীর পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়েছে। আরেক আসামি সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুর পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু হয়েছে। গতকাল বুধবার পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত বিশেষ আদালতে এই শুনানি চলছে। আগামী ২৩, ২৪ ও ২৫ জুলাই পরবর্তী যুক্তিতর্কের শুনানির দিন ঠিক করেছেন ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন।

শুনানির শুরুতে রেজ্জাকুলের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। আদালতকে তিনি বলেন, ‘আসামি রেজ্জাকুল ষড়যন্ত্র করেছেন, এর কোনো প্রমাণ নেই। মেধাবী অফিসারদের শায়েস্তা করার জন্য তাদের এ মামলার আসামি করা হয়েছে। মামলাটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। মামলায় দেওয়া হয়েছে রাজনৈতিক রং।’ রেজ্জাকুলের পক্ষে খন্দকার মাহবুব হোসেন যুক্তিতর্ক শেষ করলে সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী আবদুস সালামের পক্ষে যুক্তিতর্ক শুনানি শুরু করেন তার আইনজীবী রফিকুল ইসলাম।

রফিকুল ইসলাম আদালতকে বলেন, ‘এ মামলাটি রাজনৈতিক হত্যাকা-। রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য আবদুস সালামকে আসামি করা হয়েছে। উপমহাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাস, সংস্কৃতি বিশ্লেষণ করার প্রয়োজন রয়েছে। এগুলো দেখলে বোঝা যাবে, আবদুস সালাম পিন্টু এ মামলায় জড়িত নন।’ পরে পিন্টুর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ পড়ে শোনান তার আইনজীবী রফিকুল ইসলাম। পিন্টুর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার আগে মামলার অন্যতম আসামি মুফতি হান্নানসহ অন্য আসামিরা তার কাছে হামলার পরিকল্পনার কথা জানান। হামলার পরিকল্পনায় সায় দিয়ে প্রশাসনিক ও আর্থিক সহায়তা দেন পিন্টু।

আইনজীবী রফিকুল ইসলাম যখন যুক্তিতর্ক শুনানি করছিলেন, তখন আসামি আবদুস সালাম পিন্টু আদালতকে বলেন, মামলার ব্যাপারে তিনি কিছু কথা বলতে চান। আদালত তখন পিন্টুকে বলেন, তার আইনজীবীর বক্তব্য শেষ হলে তিনি কথা বলার সুযোগ পাবেন। পিন্টুর আইনজীবী রফিকুল ইসলাম আদালতকে জানান, টাঙ্গাইল থেকে এসে মামলা পরিচালনা করছেন তিনি। পিন্টু তার বন্ধু। বেলা ১টা ৪০ মিনিটের দিকে আদালতের কার্যক্রম শেষ হয়। সরেজমিন দেখা যায়, আদালতের অনুমতি নিয়ে বেলা ২টায় এজলাসে আসামিদের সঙ্গে দেখা করেন তাদের স্বজনরা। তারা সেখানে ২০ মিনিট অবস্থান করেন। আদালত সূত্র বলছে, পিন্টুর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হলে বাকি থাকবে একজনের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করার। তিনি মামলার অন্যতম আসামি সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর।

এর আগে গত মঙ্গলবার রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরীর পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে তার আইনজীবী মোহাম্মাদ আহসান বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মধ্য দিয়ে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে সত্য। তবে রাষ্ট্রপক্ষ নিরপেক্ষ সাক্ষী দিয়ে তার মক্কেলের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি। রেজ্জাকুলের বিরুদ্ধে সরাসরি কোনো সাক্ষ্যও নেই। আইনজীবী আহসান আদালতে দাবি করেন, মুফতি হান্নানের প্রশ্নবিদ্ধ জবানবন্দিতে হাওয়া ভবনে বৈঠক করার যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

"