উত্তরায় চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় দোকান লুট

প্রকাশ : ১০ জুন ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর উত্তরায় ৯ নম্বর সেক্টরে গত শুক্রবার রাতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা একটি মার্কেটে ভাঙ্গচুর করে। এসময় দোকনিদের ক্যাশে থাকা নগদ সাড়ে ৫ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এই হামলায় জড়িত সকলে ছাত্রলীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সালমান খান প্রান্তর অনুসারী। তার সম্মতিতেই এ হামলা চালানো হয়।

এই ভাঙ্গচুরের জড়িত দুইজনকে ব্যবসায়ীরা ঘটনা স্থলে অবরোধ করে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এরা হলেন, ইউনুস মন্ডল ও শহিদুল। উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের এসআই ওমর কাইয়ুম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মার্কেটে হামলা ও দুইনজনকে আটক করার করার কথা জানান। এ ঘটনায় শুক্রবার মধ্যরাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন ব্যবসায়ী সোবহান মিয়া। মামলার অন্য আসামীরা হলেন বাবুল, তুহি, মাহিন , বিপি সাগর ও টোকাই আরিফ ।

গত বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগের নেতা প্রান্তর কথা বলে একদল কর্মী মেম্বার মার্কেটের বেশ কয়েকটি দোকানে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে পর দিন শুক্রবার ১৫-২০ জন যুবক মেম্বার মার্কেটে হামলা চালিয়ে দোকানের ব্যবসায়ীদের মারধোর করে, এসময় তারা বেশ কয়েকটি দোকান ঘর ভাঙ্গচুর করে এবং দোকানে থাকা নগদ সাড়ে ৫ লাখ টাকা জোর করে নিয়ে যায়।

উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই ওমর কাইউম জানান, মারামারি এবং ভাংচুরের ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে যায় টহল পুলিশ এবং ইউনুছ ও শহিদলকে আটক করে। ঘটনায় ৭ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাকী আসামীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

"