ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিক্রিয়া

বাজেটে সমতার প্রশ্ন উপেক্ষিত

প্রকাশ : ০৯ জুন ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রস্তাবিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে সমতার প্রশ্নটি উপেক্ষিত রয়ে গেছে বলে মনে করে ওয়ার্কার্স পার্টি। গতকাল শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দলটি এ মন্তব্য করেছে। বিবৃতিতে বলা হয়, বাজেটে এবারও সমতার প্রশ্নটি উপেক্ষিত রয়ে গেছে। বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী উপসংহারে প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধির সঙ্গে এ যাবতকাল সমতা বিধানের অসামঞ্জস্যতার কথা স্বীকার করে একে ভবিষ্যতের জন্য রেখেছেন। আগামীতে ‘প্রবৃদ্ধিকে সুসংহত ও টেকসই’ করার কথা বলা হলেও ক্রমবর্ধমান আয়বৈষম্য দূরীকরণের কোনো পদক্ষেপের কথা বলা হয়নি। এই আয়বৈষম্য ও অসমতা অর্থনৈতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক ক্ষেত্রে বড় ধরনের অস্থিতিশীলতা তৈরি করে ওই উন্নয়নের পথকেই বরং বন্ধুর করে তুলবে।

ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিক্রিয়ায় বলা হয়, এবারের বাজেট বড়লোক, বিশেষ করে ব্যাংক মালিকদের প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট। তবে সর্বজনীন পেনশন স্কিমের প্রস্তাবনা বাজেটের উজ্জ্বল দিক বলে ওয়ার্কার্স পার্টি মনে করে। গত দশ বছরে অর্থনীতি একটি সাবলীল জায়গায় প্রতিস্থাপিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছে ওয়ার্কার্স পার্টি। প্রতিক্রিয়ায় বলা হয়, একে টেকসই ও প্রকৃতঅর্থে জনবান্ধব করতে প্রবৃদ্ধির সঙ্গে সমতার মেলবন্ধন অবশ্যই ঘটাতে হবে। তাহলেই কেবল ‘সমৃদ্ধির আগামীর পথযাত্রা’ নিশ্চিত হবে।

দলটি আশা করে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ২০২১ সালে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে উল্লিখিত ‘সমতা মানবিক মর্যাদাবোধ ও সামাজিক ন্যায়বিচার’ প্রতিষ্ঠিত হবে।

"