বর্ষবরণে প্রস্তুত চট্টগ্রাম

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০

চট্টগ্রাম ব্যুরো

বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলা ১৪২৪ সালকে বিদায় দিয়ে নতুন বছরকে আবাহনের প্রস্তুতি নিয়েছে চট্টগ্রামবাসী। গতকাল শুক্রবার বর্ষবিদায়ের দিনে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ছিল নানা আয়োজন। সম্মিলিত পহেলা বৈশাখ উদযাপন পরিষদের আয়োজনে নগরের প্রধান অনুষ্ঠানটি শুরু হয় ডিসি হিল মুক্তমঞ্চে। এ অনুষ্ঠান এবার ৪১ বছরে পা রাখল।

অভ্যুদয় সাংস্কৃতিক সংগঠনের দলীয় সংগীত ও নৃত্যের মধ্য দিয়ে বিকেলে শুরু হয় বর্ষবিদায়ের অনুষ্ঠান। তারা একে একে পরিবেশন করেন ‘একি লাবণ্যে’, ‘আকাশ আমার ভরল আলোয়’, ‘ধীরে ধীরে বায়ু বহিতেছে’, ‘হে আকাশ বিহারী’ ইত্যাদি। এরপর ওড়িশী অ্যান্ড টেগোর ড্যান্স মুভমেন্ট সেন্টারের শিশু শিল্পীরা পরিবেশন করে ‘বাংলা আমার সরষে ইলিশ’ গানের সঙ্গে অসাধারণ নৃত্য।

বর্ষবিদায়ের দিন একে একে পরিবেশনায় অংশ নেয় শ্রুতিঅঙ্গন বাংলাদেশ, মোহরা আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, কৃষ্ণচূড়া স্কুল, কুসুম ললিতকলা একাডেমি, নবকুঁড়ি, সেবাঘর সংস্কৃতি দল, শান্তঞ্জলি সঙ্গীত নিকেতন, খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি, গোসাইলডাঙ্গা কল্পতরু সংঘ, চারুতা নৃত্যকলা একাডেমি, ড্যান্স একাডেমি, অঙ্গনা নৃত্য একাডেমি, শ্যামা নৃত্যাঙ্গন, নিক্কণ একাডেমি, সুরাঙ্গন বিদ্যাপীঠ, তারুণ্যের উচ্ছ্বাস ইত্যাদি।

নাট্যজন আহমেদ ইকবাল হায়দার জানান, এবার গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক সৈয়দ মহিউদ্দিন এবং প্রাচীন পুঁথি, পান্ডুলিপি ও লোকসাহিত্য সংগ্রাহক মুহাম্মদ ইসহাক চৌধুরীকে সম্মাননা জানানো হচ্ছে।

এদিকে বর্ষবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠানকে ঘিরে ডিসি হিলে তিন স্তরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ। কয়েকশ’ পুলিশ সদস্য সাদা পোশাকে দায়িত্ব পালন করছে। ডিসি হিলের মূল ফটকের বাম পাশে স্থাপন করা হয়েছে পুলিশের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ। সেখানে র‌্যাব সদস্যদেরও দেখা গেছে দায়িত্ব পালন করতে। এদিকে চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমি এবং শিশুদের সংগঠন ফুলকি বর্ষবিদায় ও বরণ নিয়ে আয়োজন করেছে আলাদা অনুষ্ঠানমালা।

 

"