উসকানিদাতারা চেয়েছিল লাশ : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ : ১১ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে একদল লোক উদ্দেশ্যমূলকভাবে নাশকতামূলক কর্মকা- করেছে। অতীতের মতো এবারও ঘোলা জলে মাছ শিকারের জন্য এই আন্দোলনের রাজনৈতিকীকরণের চেষ্টা চলছে। উসকানিদাতারা চেয়েছিল লাশ। কিন্তু পায়নি। তাই তাদের দুঃখ। কোটা নিয়ে আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, কোটা পদ্ধতি স্থায়ী বা চিরস্থায়ী কোনো বন্দোবস্ত নয়। কোটাপদ্ধতি আগেও পরিবর্তন হয়েছে। এখনো এটা পরিবর্তনযোগ্য। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা সংস্কার করার পরও এটা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাস্তব সত্য হলো মেধা কোটা ৪৫ শতাংশ হলেও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ বাস্তবে মেধার ভিত্তিতে গড়ে ৭০ শতাংশ নিয়োগ হয়। লিখিত বক্তব্যে বিগত তিনটি বিসিএসের তথ্য তুলে ধরেন হাসানুল হক ইনু। মন্ত্রী জানান, ৩৩তম বিসিএসে মেধা কোটায় নিয়োগ হয়েছে ৭৭ দশমিক ৪০ শতাংশ। ৩৫তম বিসিএসে মেধা কোটায় নিয়োগ হয় ৬৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আর ৩৬তম বিসিএসে মেধা কোটায় নিয়োগ হয় ৭০ দশমিক ৩৮ শতাংশ। ইনু বলেন, বর্তমান সরকার কোটা সংস্কার করে বলেছে, বিশেষ কোটায় যোগ্য প্রার্থী পাওয়া না গেলে সেই ফাঁকা পদগুলো মেধাতালিকা থেকে নিয়োগ করা হবে। সম্প্রতি এই সংস্কার করা হয়।

"