ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ইতালিয়ান কোচের গুডবাই

প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

কোচ নিয়ে মৌসুমের শুরু থেকেই ঝামেলা পোহাতে হয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে। শুরুর দিকে সৈয়দ নঈমুদ্দিনকে চাইলেও পায়নি গোপীবাগের ক্লাবটি। বাংলাদেশের সাবেক কোচ যোগ দিয়েছিলেন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবে। পরে কলকাতা থেকে সুব্রত ভট্টাচার্যকে উড়িয়ে এনেছিল ব্রাদার্স। কিন্তু ফেডারেশন কাপে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে তাকে লাল কার্ড দেখিয়েছিল পুরান ঢাকার ক্লাবটি। নতুন কোচ হিসেবে জিওভান্নি স্কানুকে নিয়োগ দিয়েছিল ব্রাদার্স ইউনিয়ন। কিন্তু ইতালিয়ান কোচকে ঘিরে ক্লাবের যা আশা ছিল তাতে গুড়েবালি। স্কানুকে রাখতে ব্যর্থ হলো তারা। মায়ের অসুস্থতার কারণে ব্রাদার্সের সঙ্গে আর থাকা হচ্ছে না ইতালিয়ান কোচের। ফিরে যাচ্ছেন দেশে।

ব্রাদার্সে এক মাসের মতো ছিলেন স্কানু। চুক্তি ছিল এ বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত। কিন্তু অসুস্থ মায়ের পাশে থাকতে চান তিনি। বলেছেন, ‘আগে মা, আমি এখন তার পাশেই থাকতে চাই। তার অপারেশন হয়েছে। এখনো ৪০-৪৫ দিন হাসপাতালেই থাকতে হবে।’

শেখ রাসেলের সঙ্গে প্রিমিয়ার লিগে ব্রাদার্স গোলশূন্য ড্র করার পরপরই ঢাকা ছাড়েন স্কানু। ম্যানেজার আমের খান বলেছেন, স্কানু-অধ্যায় শেষ হয়ে গেছে বলে দেওয়াই যায়। মায়ের অসুস্থতার কারণে সে থাকতে পারছে না। আমরা এখন নতুন কোচের সন্ধান করব।’

প্রিমিয়ার লিগে ব্রাদার্স এখনো কোনো জয় পায়নি। প্রথম দুই ম্যাচে টিম বিজেএমসি ও শেখ রাসেলের সঙ্গে গোলশূন্য ড্রয়ের পর তৃতীয় ম্যাচে হেরেছে রহমতগঞ্জের কাছে। এখন পর্যন্ত লিগে গোলের খাতা খুলতে পারেনি ঢাকার ফুটবলে একসময় আবাহনী-মোহামেডানের পরপরই বড় দল হিসেবে পরিচিতি পাওয়া এই ক্লাব।

খুব খারাপ কোচ ছিলেন না স্কানু। ক্যারিয়ার বেশ দীর্ঘই। কোচিং করিয়েছেন ইতালি, লিথুয়ানিয়া, নাইজেরিয়া, ব্রাজিল ও হাঙ্গেরির বিভিন্ন ক্লাবে। কিন্তু বাংলাদেশ অধ্যায়টা দীর্ঘায়িত করলেন না তিনি। আফসোস বাড়িয়ে গেলেন ব্রাদার্স ইউনিয়নের।

"