ধাওয়ান-রাহুলের দিন

প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

রানপর্বতের আভাস দিয়েছিল ভারতের উদ্বোধনী জুটি। ১ উইকেটে স্কোর বোর্ডে ২১৯ রান পর্যন্ত জমা করেছিল ভারত। কিন্তু ছন্দটা ঠিক ধরে রাখতে পারেনি সফরকারীরা। পরের ১১০ রানের মধ্যে সাজঘরে ফিরেছেন শিখর ধাওয়ান, চেতেশ্বর পুজারা, অজিঙ্কা রাহানে, বিরাট কোহলি ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এই পঞ্চমুখকে সাজঘরে পাঠিয়ে ম্যাচেও দারুণভাবে ফিরে এল শ্রীলঙ্কা।

সবশেষ ২০১১ সালে দেশের বাইরে কোনো টেস্ট সিরিজে ভারতের হয়ে একাধিক শতক করেছিলেন রাহুল দ্রাবিড়। এবার সেই কৃতিত্ব দেখিয়েছেন ধাওয়ান। মুরালি বিজয়ের পাওয়া চোটে দলে এসে টেস্টে জায়গা পাকা করার মতো খেলেছেন উদ্বোধনী এই ব্যাটসম্যান।

তৃতীয়বারের মতো তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সব টসে জেতা ভারত শনিবার ব্যাট করতে নেমে পায় দারুণ সূচনা। লঙ্কানদের নতুন বলের দুই বোলার বিশ্ব ফার্নান্দো ও লাহিরু কুমারা পাত্তাই পাননি ধাওয়ান-লোকেশ রাহুলের কাছে। প্রথম সেশনে অর্ধশতক পেয়েছেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। ২৭ ওভারে তুলেছেন ১৩৪।

৪০তম ওভারে ১৮৮ রানে ভাঙে ভারতের উদ্বোধনী জুটি। শ্রীলঙ্কায় অতিথি কোনো দলের এটাই সর্বোচ্চ। আগেরা সেরাও ছিল ভারতেরই। ১৯৯৩ সালে সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে ১৭১ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছিলেন মনোজ প্রভাকর ও নভোজাত সিং সিধু।

লঙ্কান বোলারদের ওপর ছড়ি ঘুরানো ধাওয়ানকেও ফেরান পুস্পকুমারা। দিনেশ চান্দিামালের দারুণ এক ক্যাচে পরিণত হন ষষ্ঠ শতক পাওয়া বাঁ-হাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। ১২৩ বলে খেলা ধাওয়ানের ১১৯ রানের ইনিংসটি গড়া ১৭টি চারে।

দলে ফেরা লাকসান সান্দাকান ফেরান টপ অর্ডারের আরেক ব্যাটসম্যান চেতেশ্বর পুজারাকে। দুই অঙ্কেই যেতে পারেননি তিনি। তৃতীয় সেশনের শুরুতেই অজিঙ্কা রাহানেকে বোল্ড করেন বাঁহাতি স্পিনার পুস্পকুমারা। ইনিংস মেরামতের চেষ্টায় থাকা কোহলিকে ফিরিয়ে ভারতকে চাপে ফেলেন সান্দাকান।

রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে বিদায় করে ইনিংস পুনর্গঠনের আরেকটি চেষ্টা থামিয়েছেন ফার্নান্দো। তবে দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা ও হার্দিক পান্ডিয়ার সামর্থ্য আছে দলকে চারশ রানে নিয়ে যাওয়ার। ৪০ রানে ৩ উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কার সেরা বোলার পুস্পকুমারা। ২ উইকেট নিতে সান্দকান খরচ করেছেন ৮৪ রান।

অবশ্য পাল্লেকেলে টেস্টের প্রথম দিনের শুরুতেই রেকর্ড করেছেন লোকেশ রাহুল। আউট হওয়ার আগে ৮৫ রান করেছেন। এ নিয়ে টানা সাত ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি পেয়েছেন তিনি। টেস্ট ইতিহাসে এর আগে টানা সাত ইনিংসে নূন্যতম অর্ধশতকের দেখা পেয়েছেন মাত্র পাঁচজন। রাহুলের আগে ভারতের হয়ে টানা ছয় ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি ছিল গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ ও রাহুল দ্রাবিড়ের। কাল তাদের ছাড়িয়ে যাওয়ার পাশাপাশি তিনি ভাগ বসালেন কিংবদন্তিদের কীর্তিতে। টেস্টে এর আগে টানা সাত ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন স্যার এভারটন উইকস (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার (জিম্বাবুয়ে), শিবনারায়ণ চন্দরপল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা) ও ক্রিস রজার্স (অস্ট্রেলিয়া)।

"