তিনে তিন শেখ জামাল

শেখ জামাল ২ : শেখ রাসেল ১

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

আগেরদিন ধ্রপদী এক লড়াই-ই উপহার দিয়েছিল ঢাকা আবাহনী ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। রোমাঞ্চকর দ্বৈরথের মীমাংসা হয়েছিল শেষ মুহূর্তের গোলে। হাসি ফুঠেছিল আবাহনীর। ‘ঢাকা ডার্বি’র পুনরাবৃত্তি যেন কালকের দুই শেখের লড়াইয়ে হলো। এবার অন্তিম সময়ের গোলে কপাল পুড়েঠে শেখ রাসেলের। কাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে শেখ রাসেলকে ২-১ গোলে হারিয়েছে সাবেক লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

ধানম-ির ক্লাবের এই জয়ের নায়ক দুই বিদেশি। শেখ জামাল কোচ জোসেফ আসুফি ধন্যবাদ দিতে পারেন সলোমন কিং ও মোমোদুকে। কারণ দলের দুটো গোলই যে দুই গাম্বিয়ান। লিগে শেখ জামালের এটা টানা তৃতীয় জয়। তাদের মতো লিগে শতভাগ জয়ের রেকর্ড ধরে রেখেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। অন্যদিকে তৃতীয় ম্যাচে এসে লিগে প্রথম হারের স্বাদ পেল শেখ রাসেল। আগের দুই ম্যাচে একটিতে জয় ও একটি ড্র করেছিল তারা।

কাল ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় শেখ জামাল। ৮ মিনিটের মাথায় দলকে লিড এনে দেন মোমোদু। এনামুলের কর্নার থেকে হেড করে গোলটি করেন তিনি। পাঁচ মিনিট পরেই এনামুলের আরেকটি কর্নারে রাফায়েলের হেড অল্পের জন্য পোস্টের বাইরে চলে যায় শেখ জামালকে আক্ষেপে পুড়িয়ে। গাম্বিয়ান মোমোদু ও নাইজেরিয়ান রাফায়েলে হাঁসফাঁস করতে থাকা শেখ রাসেল অবশ্য খেলায় ফেরে ম্যাচের ৩৭ মিনিটে, খালেকুজ্জামান সবুজের গোলে।

দুর্দান্ত একটা গোলই করেছেন সবুজ। বারবার দেখার মতোই গোল এটি। মাঠের বাম প্রান্ত থেকে চলতি বলে তাঁর বাঁ পায়ের ভলিটি শেখ জামালের গোলরক্ষক মিতুলকে ফাঁকি দিয়ে ঢুকে যায় দূরের পোস্ট দিয়ে। মিতুল নড়ে ওঠারও সুযোগ পাননি। এমন গোল দেখে প্রতিপক্ষ কোচ জোসেফ আফুসি হাত দিলে অবাক হওয়ার কিছু নেই!

ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারলেও খুশিই হতো শেখ রাসেল। কিন্তু তাদের সেই আশা শেষ পর্যন্ত পূরণ হতে দেননি সলোমন। যোগ করা সময়ে মোমোদুর হেড দিয়ে বাড়ানো বল দৌড়ে গিয়ে জালে ফেলেন সলোমন। শেখ রাসেলের দুই স্টপারব্যাক উত্তম আর মণি তখন দর্শক হয়েই ছিলেন। ও মণি যেন দর্শক।

হারানো শিরোপা উদ্ধারের অভিজানে দুর্দান্ত গতিতেই ছুটছে শেখ জামাল। লিগের প্রথম ম্যাচে তারা হারিয়েছিল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে, ২-০ গোলে। দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য জয়ের জন্য বেশ কাঠখড় পোড়াতে হয়েছিল তাদের। টিম বিজেএমসির বিপক্ষে ন্যূনতম ব্যবধানে জয় পেয়েছিল জোসেফ আফুসির দল। পক্ষান্তরে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করা শেখ রাসেল পরের ম্যাচেই পা হড়েকেছে ব্রাদার্স ইউনিয়নের কাছে। ম্যাচটা গোলশূন্য থেকে গিয়েছিল। সেই ড্রয়ের ধাক্কাটা সামলে উঠতে না উঠতেই হারতে হলো শেখ রাসেলকে।

"