২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালের তদন্ত চান রানাতুঙ্গা

প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৭, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

৩ মার্চ, ২০০৯। বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য কালো একটা দিন। সেদিন পাকিস্তানের লাহোরে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে ভয়াল সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছিল। ওই দুঃস্বপ্নের কয়েকটা মিনিটের কথা মনে করতেই শিওরে ওঠেন কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জায়বর্ধনেরা। সাঙ্গাকারা তাই প্রশ্ন তুলেছেন, তাদের জীবন ঝুঁকিতে ফেলে কেন সেবার পাকিস্তান সফরে পাঠানো হয়েছিল? কারা এই সফরের সূচি তৈরি করেছিলÑবিষয়টির তদন্ত দাবি করেছেন সাঙ্গা।

শ্রীলঙ্কা যখন পাকিস্তান সফরে যায়, তখন এসএলসির অন্তর্বর্তীকালীন কমিটির প্রধান ছিলেন অর্জুনা রানাতুঙ্গা। সাঙ্গাকারার তীরটা স্বাভাবিকভাবে বিদ্ধ করছে সাবেক এই অধিনায়ককে। রানাতুঙ্গা চুপ থাকেননি। সাঙ্গাকারার জবাবে সাবেক শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক প্রশ্ন তুলেছেন, তদন্ত হওয়া উচিত ২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনালেরও। ওয়াংখেড়ের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার করা ২৭৪ রান ভারত টপকেছিল ৬ উইকেট আর ১২ বল বাকি থাকতে।

টুর্নামেন্টজুড়ে দারুণ খেলা শ্রীলঙ্কা ফাইনালে কেন ভারতের বিপক্ষে লড়াই করতে পারল না, সে প্রশ্ন তুলেছেন রানাতুঙ্গা, ‘যদি সাঙ্গাকারা পাকিস্তান সফর নিয়ে তদন্তের দাবি করে, সেটি হওয়া উচিত। তবে আমি মনে করি, আমাদের আরো একটা তদন্ত করা উচিত, ২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনালে কি হয়েছিল। আমার মনে হয়, ফিটনেস ইস্যুর চেয়ে ক্রীড়ামন্ত্রীর এদিকে বেশি নজর দেওয়া উচিত।’

২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনালে ধারাভাষ্যকার হিসেবে ওয়াংখেড়েতে ছিলেন রানাতুঙ্গা। চোখের সামনে উত্তরসূরিদের নিস্তেজ লড়াই দেখে ভীষণ হতাশ হয়েছিলেন বিশ্বকাপজয়ী শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক, ‘কি হয়েছিল সেদিন, আমি সেটি উন্মোচন করতে পারছি না। তবে একদিন প্রমাণসহ সত্যটা বের করব। এ ব্যাপারে তদন্ত হওয়া উচিত। বিশ্বকাপ ফাইনালে ধারাভাষ্যকার হিসেবে মাঠে ছিলাম। শ্রীলঙ্কার খেলা দেখে ভীষণ হতাশ হয়েছিলাম।’ রানাতুঙ্গা অবশ্য কারো দিকে আঙুল তোলেননি। তবে তার তীরটা যে উত্তরসূরিদের দিকে এটা পরিষ্কার, ‘ভারত কিভাবে সেদিন জিতে গেল? ক্রিকেট খেলটাকে এভাবে নোংরা করা উচিত নয়।’

"