প্রতিশোধ দেখছেন ইমরান খান

প্রকাশ : ১৮ জুন ২০১৭, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

বিশ্বকাপের মঞ্চে কখোনোই ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। দুবার তো শিরোপা লড়াইয়েও তাদের হারিয়ে দিয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীরা। কালের বিবর্তনে আরেকটি ফাইনাল মুখোমুখি করে দিয়েছে ক্রিকেটের সবচেয়ে ধ্রপদী দুই প্রতিদ্বন্দ্বীকে। গ্রুপপর্বের ম্যাচে চিরশত্রুদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পন আরো তাতিয়ে দিয়েছে পাকিস্তানকে। সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান তো বলেই দিলেন- আজকের দ্বৈরথটা পাকিস্তানের জন্য প্রতিশোধের মঞ্চ।

পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক এবং বর্তমান রাজনীতিবীদ ইমরান খান মনে করেন, গ্রুপ পর্বে ভারতের কাছে যে পরাজয়, তার একটা প্রতিশোধ নেয়ার দারুণ সুযোগ পেয়ে গেছে সরফরাজ আহমেদের দল। একটি টিভি চ্যানেলকে ইমরান খান বলেন, ‘আমি মনে করি, আমাদের নিজেদের গৌরব এবং সম্মান পূনরুদ্ধারের দারুণ একটা সুযোগ এসে গেছে। কারণ, যেভাবে আমরা ভারতের কাছে প্রথম ম্যাচ হেরেছি, তাতে প্রতিশোধ নেয়ার দারুণ সুযোগ এসে গেছে।’

প্রথম ম্যাচে পরাজয়ের কথা উল্লেখ করে ইমরান খান বলেন, ‘প্রথম ম্যাচে আমরা কত লজ্জাজনকভাবেই না হেরেছি। আবার আমরা সেখান থেকে ঘুরেও দাঁড়িয়েছি।’

১৯৯২ বিশ্বকাপ জয়ের কারণে পাকিস্তানের ক্রিকেট ইতিহাসে ইমরান খানকে মনে করা হয় সেরা অধিনায়ক হিসেবে। ফাইনালে বর্তমান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে একটা পরামর্শ দিয়ে রাখলেন তিনি। তার উপদেশ হলো, যদি সরফরাজ টস জেতেন, তাহলে তিনি যেন ভারতকে ব্যাট করতে না পাঠান।

ুযত যাই হোক, ইমরান খান চান একটি ভারত-পাকিস্তান মহারণ, বড় ফাইনাল। ম্যাচটা যাতে এক তরফা না হয়ে যায়, সেটার দিকেই বেশি মনযোগি সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক। এ কারণে, তিনি চান পাকিস্তানই আগে ব্যাট করুক। তিনি বলেন, ‘ভারত আগে ব্যাট করলে আমাদের ওপর বড় স্কোর চাপিয়ে দিতে পারে। তাতে আমাদের ওপর ডাবল চাপ তৈরি হবে। একটা হবে, আমাদের বোলাররা দারুণ চাপে পড়ে যাবে এবং দ্বিতীয় চাপ হচ্ছে, বড় রান রেট। যা প্রতি ওভারেই বাড়তে থাকবে। সুতরাং, পাকিস্তানের জয় হবে সুদুরপরাহত।’

নিজ দলের বোলারদের ওপর দারুণ আস্থা ইমরানের। তিনি বলেন, ‘আমাদের মূল শক্তি হচ্ছে বোলিং। আমরা যদি টস জিতি তাহলে অবশ্যই প্রথমে ব্যাট করা উচিৎ। আমাদের বোলিংয়ের তুলনায় ব্যাটিং খুব বেশি ভালো নয়। সত্যি আমি অভিভুত। সরফরাজ নিজেকে অসাধারণ এবং শক্তিশালী এক অধিনায়কে পরিণত করেছে।’

"