অস্ট্রেলিয়ার শক্তিশালী দল

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৭, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

অবশেষে নানা জল্পনা কল্পনার পর আগামী আগস্ট-সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ সফরে দুই টেস্টের সিরিজের জন্য শক্তিশালী দল ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া। ১৩ সদস্যের এই দলে পসার মিচেল স্টার্ক ও বাঁ-হাতি স্পিনার স্টিভ ও’কিফ না থাকলেও, অস্ট্রেলিয়ার হয়ে বাংলাদেশে আসছেন অজিদের অন্যসব সেরা তারকারা।

মূলত গত ফেব্রুয়ারি-মার্চে ভারত সফরের সময় পায়ের চোটের কারণে ওই সফরের শেষের দিকে খেলতে পারেননি স্টার্ক। কিছুটা সুস্থ হয়ে বর্তমানে ইংল্যান্ডে চলমান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেললেও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, এখনও পুরোপুরি সুস্থ হননি এই পেসার। তাই তাকে বাংলাদেশ সফরের দলে রাখা হয়নি।

এবারের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শিরোপা প্রত্যাশী দল ছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। তাদের ও নিউজিল্যান্ডকে পিছনে ফেলে ‘এ’ গ্রুপ থেকে সেমি-ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড।

তবে স্টার্কের বাদ পড়ার কারণ চোট হলেও, ও’কিফ বাদ পড়েছেন আশানুরূপ পারফরম্যান্স করতে না পারায়। নির্বাচকদের যুক্তি, ভারতে পুনে টেস্টে ভালো করলেও সিরিজের বাকি ম্যাচ গুলোতে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেননি তিনি। তাই তার জায়গায় ২৩ বছর বয়সী বাঁ-হাতি স্পিনার অ্যাশটন অ্যাগারকে দলে নিয়েছে তারা।

দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে আগামী ১৮ অগাস্ট ঢাকা পৌঁছাবে স্টিভেন স্মিথরা। দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ হবে ২২-২৩ অগাস্ট, ফতুল্লায়। প্রথম টেস্ট ঢাকায় শুরু হবে ২৭ অগাস্ট। আর চট্টগ্রামে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হবে ৪ সেপ্টেম্বর।

এর আগে দুই বছর আগে ২০১৫ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল স্টিভেন স্মিথের দলের। নিরাপত্তা শঙ্কায় শেষ মুহূর্তে সফর স্থগিত করে দেশটি। বাংলাদেশ সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও আসেনি তারা।

একই ঝুঁকির কথা উল্লেখ করে গত বছরের শুরুতে বাংলাদেশে হওয়া অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও দল পাঠায়নি অস্ট্রেলিয়া। সফলভাবেই শেষ হয় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ।

২০০৬ সালের পর কোনো টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফর করেনি অস্ট্রেলিয়া। সর্বশেষ ২০১১ সালে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে এসেছিল তারা।

অস্ট্রেলিয়া দল: স্টিভ স্মিথ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যাশটন অ্যাগার, হিল্টন কার্টরাইট, প্যাট কামিন্স, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, জশ হেইজেলউড, উসমান খাওয়াজা, নাথান লায়ন, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, জেমস প্যাটিনসন, ম্যাথিউ রেনশ, ম্যাথু ওয়েড।

"