জিদানের একজন কোর্তোয়া আছে

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

আলাভেসের বিপক্ষে নজরকাড়া নৈপুণ্য দেখিয়ে গোলপোস্ট অক্ষত রেখেছেন থিবো কোর্তোয়া। বাঁচিয়ে দিয়েছেন অন্তত হাফ ডজন গোল। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পর কোচ জিনেদিন জিদানের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা পেলেন তিনি। রিয়াল মাদ্রিদ বসের মতে, লা লিগার শিরোপা লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন এই বেলজিয়ান গোলরক্ষক।

গত শুক্রবার রাতে ঘরের মাঠে ২-০ গোলে জিতে শিরোপার খুব কাছে চলে এসেছে লস ব্লাঙ্কোসরা। বাকি থাকা তিন ম্যাচের দুটিতে জিতলেই দুই বছর পর স্পেনের শীর্ষ লিগের শিরোপা পুনরুদ্ধার করবে তারা। আলফ্রেডো ডি স্টেফানো স্টেডিয়ামে রিয়ালের রক্ষণভাগের খোলনলচ পাল্টাতে বাধ্য হয়েছিলেন জিদান। চোটের কারণে ছিটকে গেছেন মার্সেলো। নিষেধাজ্ঞার কারণে অধিনায়ক সার্জিও রামোস আর দানি কারভাহালও খেলতে পারেননি। উইঙ্গার লুকাস ভাজকেজকে তাই খেলতে হয়েছে রাইট ব্যাক হিসেবে।

রক্ষণভাগের মূল সৈনিকদের ছাড়া মাঠে নামা স্বাগতিকদের বেশ কয়েকবার বিপদে ফেলে আলাভেস। তবে তাদের সামনে চীনের প্রাচীর হয়ে আবির্ভূত হন কোর্তোয়া। অসাধারণ সব সেভ করে ‘ক্লিন শিট’ নিয়ে মাঠ ছাড়েন ২৮ বছর বয়সি এই তারকা। লিগের সবশেষ পাঁচ ম্যাচে কোনো গোল হজম করেননি তিনি।

ম্যাচ শেষে গণমাধ্যমে জিদান বলেন, ‘সে (কোর্তোয়া) খুবই গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড় এবং শিরোপার লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এটা দলগত প্রচেষ্টা হলেও সে অনেক গোল ঠেকিয়ে দিচ্ছে। সে কারণেই আমরা খুব ভালো করছি।’

তিনি যোগ করেন, ‘একেবারেই গোল হজম না করা অসম্ভব ব্যাপার। কিন্তু এটা সত্য যে, আমরা খুব কম গোল হজম করছি। আমরা যা করছি, সেটা আমাদের চালিয়ে যেতে হবে। আমাদের একজন কোর্তোয়া আছে, যে কিনা দারুণ ফিট।’

চলতি মৌসুমে নিজেকে ফিরে পাওয়া কোর্তোয়ার গতবারের পারফরম্যানস নিয়ে হয়েছিল অনেক সমালোচনা। বড় অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে ২০১৮ সালের আগস্টে ইংলিশ ক্লাব চেলসি থেকে রিয়ালে নাম লেখানোর পর মানিয়ে নিতে সমস্যা হচ্ছিল তার। সেবার লিগের ২৭ ম্যাচে মাত্র আটটিতে ‘ক্লিন শিট’ রাখতে পেরেছিলেন তিনি।

তবে এবার মোট ৩২ ম্যাচ খেলে ১৮টিতে প্রতিপক্ষ দলকে গোল করা থেকে বিরত রেখেছেন সাড়ে ৬ ফুট উচ্চতার এই গোলরক্ষক। ম্যাচ প্রতি মাত্র দশমিক শূন্য ৫৬ গোল হজম করে আসরের সেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার ‘জামোরা ট্রফি’ জয়ের দৌড়ে এগিয়ে আছেন তিনি।

 

"