‘চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ই প্রধান লক্ষ্য’

প্রকাশ : ০৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

পাঁচ বছরের চুক্তিতে ম্যানচেস্টার সিটি থেকে বুন্দেসলিগা জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দিলেন জার্মান উইঙ্গার লেরয় সানে। দেশের ক্লাবে যোগ দিয়েই আগামী মৌসুমে লক্ষ্য স্থির করে ফেললেন সানে। গত শুক্রবার নতুন ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিপর্ব সেরে তিনি জানিয়ে দিলেন বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতাই তার প্রধান লক্ষ্য।

৪৯ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফির বিনিময়ে আগামী মৌসুম থেকে জার্মান জায়ান্টদের হয়ে পথ চলা শুরু করবেন সেন। তার আগে বায়ার্নের সঙ্গে চুক্তি পাকা করে জার্মান ফুটবলার জানালেন, ‘বায়ার্ন খুব বড় একটা ক্লাব যাদের লক্ষ্যও অনেক বড়। আমি নিজেও এমন বড়সড় লক্ষ্যপূরণের চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করি।’ সানে আরো বলেন, ‘আমি চাইব বায়ার্নের হয়ে যত বেশি সম্ভব ট্রফি জিততে। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার লক্ষ্যটা সবার ওপরে থাকবে।’

বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন জানিয়েছে সানেকে দলে নেওয়ার জন্য কোনো রকম ট্রান্সফার ফি তারা ম্যানসিটিকে প্রদান করেনি। কিন্তু জার্মান ডেইলি বিল্ড দাবি করেছে জার্মান উইঙ্গারকে দলে পেতে সিটিকে ৫০ মিলিয়ন ইউরোর কাছাকাছি ট্রান্সফার ফি দিয়েছে বায়ার্ন। বিবিসির রিপোর্ট অনুযায়ী অঙ্কটা আরো বেশি। সে যাই হোক, সিটি বস পেপ গার্দিওয়ালার অন্যতম প্রিয় ছাত্র সানেকে দলে পেয়ে আগামী মৌসুমে যে ব্যাপক লাভবান হবে বায়ার্ন সেটা বলাই বাহুল্য। বায়ার্ন মিউনিখ কোচ হান্স ফ্লিকের সঙ্গে বোঝাপড়া গড়ার লক্ষ্যে মুখিয়ে রয়েছেন সানেও।

সদ্য বায়ার্নকে বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়ন করা কোচকে নিয়ে বলতে গিয়ে নয়া রিক্রুট জানিয়েছেন, ‘অনূর্ধ্ব-২১ জাতীয় দলে থাকার সময় থেকেই হান্স ফ্লিককে চিনি আমি। আমাদের দুজনের দারুণ সম্পর্ক ছিল সেখানে।’ বিগত চার বছরে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে জোড়া প্রিমিয়র লিগ, একটি এফএ কাপ, জোড়া লিগ কাপ এবং জোড়া কমিউনিটি শিল্ড জিতেছেন সেন। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সাফল্য অধরাই রয়ে গেছে। বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে সেই অপূর্ণ ইচ্ছে পূরণ করতে চান তিনি।

ম্যানসিটি ছেড়ে সানের বায়ার্নে যোগ দেওয়ায় স্কাই ব্লুজ কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা প্রিয় ছাত্রকে আগামীর জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। পেপের কথায়, ‘কেরিয়ারের নয়া অধ্যায়ের জন্য সানেকে অনেক শুভেচ্ছা। ও এই ক্লাবে সবচেয়ে সেরা সময়ের একজন অংশীদার ছিল। তাই ম্যানসিটির প্রত্যেক সদস্য ওকে আগামীর জন্য শুভেচ্ছা জানায়।’

 

"