মানসিক প্রস্তুতিই বড় চ্যালেঞ্জ

বলছেন প্রধান নির্বাচক নান্নু

প্রকাশ : ০৭ জুন ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

আইসিসির গাইডলাইন মেনে করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলঙ্কা ফিরেছে মাঠে। দর্শকহীন আন্তর্জাতিক সিরিজকে সামনে রেখে শুরু হয়েছে দলগুলোর অনুশীলন। গতকাল থেকে অস্ট্রেলিয়ার ডারউইনেও শুরু হয়েছে স্থানীয় একটি টি-২০ লিগ।

আগামী আগস্টে ঘরের মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য আবাসিক ট্রেনিং ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন ১৩ লঙ্কান ক্রিকেটার। পরিস্থিতি বুঝে ধাপে ধাপে যোগ দেবেন বাকিরাও। কিন্তু বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি দিনকে দিন ভয়াবহ হচ্ছে। গতকালও দেশে অদৃশ্য এই ভাইরাসের শিকার হয়েছেন ৩৫ জন। সংক্রমণ ঝুঁকি এড়াতে তাই এখনো ক্রিকেটারদের অনুশীলনে ফেরানোর সিদ্ধান্ত স্থির করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

মুশফিকুর রহিম চেয়েছিলেন এককভাবে অনুশীলন (সোলো প্র্যাকটিস) করতে। তবে মিরপুর শেরেবাংলার একাডেমি মাঠ অনুশীলনের উপযুক্ত না হওয়ায় ও পর্যাপ্ত সংখ্যক গ্রাউন্ডসম্যানের নিশ্চয়তা না থাকায় সে অনুমতি পাননি মুশফিক।

এদিকে, দীর্ঘদিন পর ক্রিকেটে ফেরার পর খেলোয়াড়দের ম্যাচ ফিটনেস পাওয়ার জন্য ৬ সপ্তাহ লেগে যাবে বলে মনে করছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। গতকাল গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘একটা সিরিজ শুরুর আগে অন্তত ৫ সপ্তাহ একটা টিম তৈরি করতে সময় লাগবে। এই ৫ সপ্তাহের মধ্যে ফিজিক্যাল ফিট করতে ৩ সপ্তাহ লাগবে। কারণ ওরা ৩ মাসের মতো ক্রিকেটের বাইরে আছে। স্কিলের জন্য ২ সপ্তাহ লাগবে। আর ম্যাচ খেলার জন্য লাগবে আরো এক সপ্তাহ। তার মানে, একটা পূর্ণাঙ্গ দল তৈরি করতে ৬ সপ্তাহ দরকার।’

দ্বিপক্ষীয় সফরসূচিতে শ্রীলঙ্কা সফরে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা তামিম-মুমিনুলদের। দ্বীপ রাষ্ট্রটিতে এই মুহূর্তে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঝুঁকি নেই। তাই বিসিবির সঙ্গে দেন-দরবার করে সিরিজ আয়োজনের জন্য প্রস্তুত তারা। তবে বিসিবি এখনো শ্রীলঙ্কা সফরের ব্যাপারে চূড়ান্ত সম্মতি দেয়নি। আইসিসির গাইডলাইন মেনে অনুশীলন শুরু করে আন্তর্জাতিক সিরিজের জন্য ক্রিকেটাররা মানসিকভাবে কতটা প্রস্তুত, আপাতত সেটাই ভাবাচ্ছে প্রধান নির্বাচককে, ‘বিদেশে গিয়ে খেলার আগে ক্রিকেটাররা মেন্টালি নিজেদের কতটা তৈরি করতে পেড়েছে, সেটা দেখতে হবে। এই মুহূর্তে বলে দেওয়া কঠিন। ট্রেনিং ক্যাম্প শুরু হলে সব বোঝা যাবে।’

এমনিতেই ফেব্রুয়ারির পর ক্রিকেটাররা দীর্ঘ পরিসরের ম্যাচের বাইরে। টেস্টের জন্য তাদের প্রস্তুত করানোর আগে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলাও দরকার ক্রিকেটারদের। সেই সুযোগটাও তো দিতে হবে। কিন্তু হিসাব অনুযায়ী শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য মুমিনুলরা সময় পাচ্ছেন ৬ সপ্তাহের কম। তাই আগামী ১০ জুন আইসিসির সভা পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে বিসিবিকে।

 

"