শিকারি নিজেই করোনার শিকার

প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

হান্টার শব্দের বাংলা অর্থ শিকারি। এই নামের এক মানুষ ছিলেন আবার বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলার। ছিলেন! ঠিকই পড়েছেন। নরম্যান হান্টার যে আর নেই! শিকারী এবার নিজেই প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের শিকার হলেন। চলে গেছেন না ফেরার দেশে।

১৯৬৬ সালে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী স্কোয়াডের এই ডিফেন্ডার বিখ্যাত ছিলেন লিডস ইউনাইটেডের হয়ে লম্বা সময় ধরে দেখানো নৈপুণ্যের জন্য। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর গত ১০ এপ্রিল হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল হান্টারকে। চিকিৎসকদের অনেক চেষ্টার পরও ৭৬ বছর বয়সে গত শুক্রবার সকালে বিদায় নেন তিনি।

সেন্টার-ব্যাক পজিশনে খেলা হান্টার তার কড়া ট্যাকলের জন্য পরিচিত ছিলেন ‘বাইটস ইয়োর লেগস’ নামে। লিডসে তার সতীর্থ থাকা এডি গ্যারি বিসিবিকে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ‘হান্টার ছিল আমাদের ক্লাবের আইকনিক ফিগার। তার সামর্থ্য সম্পর্কে মানুষকে এখন বোঝানো কঠিন। ববি মুরের মতো সে খ্যাতিমান হয়নি, কিন্তু তার সময়ে খেলা ডিফেন্ডারদের মধ্যে সে ছিল অনন্য।’

১৫ বছরের ক্যারিয়ারের লিডসের হয়ে ৭২৬টি ম্যাচ খেলেন হান্টার। তার সময়ে লিডস এফএ কাপ, লিগ কাপ জিতেছে। ১৯৭৫ সালে বায়ার্ন মিউনিখের বিরুদ্ধে ইউরোপিয়ান কাপের ফাইনালেও খেলেন হান্টার। ইংল্যান্ডের জাতীয় দলেও সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। ১৯৬৬ সালে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকলেও একাদশে ঠাঁই হয়নি।

সেবার দারুণ মেধাবী এক ঝাঁক ফুটবলার নিয়ে বিশ্বকাপ জিতেছিল ইংলিশরা। ইংল্যান্ডের একমাত্র বিশ্বকাপ জেতার ঘটনাও হয়ে আছে সেটি।

 

"