কঠিন সংকটে আর্সেনাল

প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

করোনাভাইরাসের হানায় স্থগিত হয়ে আছে ইংলিশ ফুটবল। প্রিমিয়ার লিগের মৌসুমের বাকি ম্যাচগুলো বাতিল হওয়ারও আশঙ্কা রয়েছে। পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হলে রুদ্ধধার স্টেডিয়ামেও হতে পারে ম্যাচগুলো। পরিস্থিতি যেমনই হোক না কেন, আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হচ্ছে আর্সেনাল।

এ কারণে খেলোয়াড়দের বেতন কর্তনের পরিকল্পনা করেছে উত্তর লন্ডনের ক্লাবটি। যদিও খেলোয়াড়দের কয়েক দফা প্রস্তাব দিয়েও লাভ হয়নি। বেতন কাটার ইস্যুতে প্রবল আপত্তি জানিয়েছেন ক্লাবের ফুটবলাররা। আর্সেনালের নীতি-নির্ধারকদের সবকটি প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন মেসুত ওজিল-বার্নড লেনোরা।

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের নিয়মিত দল ছিল আর্সেনাল। কিন্তু কয়েক বছর ধরে ইউরোপের শীর্ষস্থানীয় প্রতিযোগিতার মূল পর্বের টিকিট পাচ্ছে না গানাররা। তাদের খেলতে হচ্ছে দ্বিতীয় সারির টুর্নামেন্ট ইউরোপা লিগ। তাতে করে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি আয় কমেছে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটির।

করোনাভাইরাসের কারণে এই মৌসুমে আরো নাজেহাল অবস্থা তাদের। তাই খেলোয়াড়দের ১২ দশমিক ৫ শতাংশ বেতন কাটার সর্বশেষ প্রস্তাব দিয়েছে ক্লাব। যদিও তা মানতে নারাজ ডেভিড লুইজ-হেক্টর বেলেরিনরা। এ নিয়ে গত এক সপ্তাহে ক্লাব ও খেলোয়াড়দের মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে এমন প্রস্তাবও দেওয়া হয় যে, আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ নিশ্চিত করতে পারলে পূর্ণ পারিশ্রমিক দেওয়া হবে তাদের। সমঝোতার জন্য এই প্রস্তাবে খেলোয়াড়দের মধ্যে ভোটাভুটি হয়েছিল। এ জন্য ক্লাব কর্তৃপক্ষের দরকার ছিল ৭৫ শতাংশ ভোট। কেউ কেউ রাজি হলেও বেশির ভাগ ফুটবলার ক্লাবের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন।

গত মৌসুমে আর্সেনালের লোকসান হয়েছে ৩৪ মিলিয়ন ডলার। এই মৌসুমে তা কাটিয়ে ওঠার পরিকল্পনা ছিল গানারদের। কিন্তু ধাক্কা হয়ে এসেছে করোনাভাইরাস মহামারি। তা না হলে পুরো মৌসুমে অন্তত ম্যাচের দিন থেকেই ১২৫ মিলিয়ন ডলার আয় হতো আর্সেনালের। সব খরচ বাদ দিয়ে ক্লাবের মুনাফা হতো ১৫ মিলিয়ন ডলার। কিন্তু সেটা আর হলো কোথায়?

 

"