অর্জনের রামোস, গর্জনের রামোস

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

রিয়াল মাদ্রিদের ইতিহাসের সেরা ডিফেন্ডারদের একজন সার্জিও রামোস। এই প্রজন্মের রক্ষণপ্রহরীদের তালিকাতেও স্প্যানিশ তারকার নামটা ওপরের দিকেই থাকবে। কার্যত লস ব্ল্যাঙ্কোসদের অধিনায়ক ও প্রধান ডিফেন্ডার তিনি। জাতীয় দল স্পেন ও ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে সম্ভাব্য সবকিছুই জিতেছেন রামোস।

সম্প্রতি ৩৪ বছর পূর্ণ করেছেন এই তারকা। রিয়ালে তার ক্যারিয়ারের প্রায় দেড় দশক হয়েছে। জাতীয় দলেও অভিজ্ঞতা আর প্রাপ্তির শেষ নেই সেভিয়ার সাবেক ডিফেন্ডারের। বর্ণিল এই ক্যারিয়ারে তার কিছু অর্জন, রেকর্ড ও পরিসংখ্যান প্রতিদিনের সংবাদের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলোÑ

* ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পায় স্পেন। লা রোজাদের বিশ্বজয়ের অন্যতম সারথি ছিলেন রামোস। কার্লোস পুয়োল, জেরার্ড পিকে ও রামোসকে নিয়ে গড়া স্পেনের রক্ষণভাগ ওই সময়ে বিশ্বসেরা ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার ওই আসরে পাঁচটি ক্লিনশিট রেখেছেন এই ত্রয়ী।

* স্পেনের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা রামোস জিতেছেন দুটি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ। ইতিহাসের প্রথম দল হিসেবে ‘ব্যাক টু ব্যাক’ ইউরো-বিশ্বকাপ-ইউরো জয়ের কীর্তি গড়েছিল লা রোজারা। ২০০৮, ২০১০ ও ২০১২ সালে এই কীর্তি গড়েন রামোসরা। রামোস রিয়াল অধ্যায়ে দুটি কোপা ডেল রের শিরোপা জিতেছেন (২০১১ ও ২০১৪)।

* রামোস একচেটিয়া দাপট দেখিয়েছেন উয়েফা সুপার কাপে। ২০১৪, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে তার দল রিয়াল জেতে এই ট্রফি। ২০১৬ সালের ফাইনালে গোলও করেছিলেন রামোস। সেটাও সাবেক ক্লাব সেভিয়ার বিরুদ্ধে!

* উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে না পারাটা ইতালিয়ান কিংবদন্তি জিয়ানলুইজি বুফনের চিরকালীন সময়ে এক আক্ষেপের নাম হয়ে আছে। তবে চার-চারবার এই শিরোপার স্বাদ পেয়েছেন রামোস। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ২০১৪, ২০১৬, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে রুপালি ট্রফিগুলো জেতেন স্প্যানিশ তারকা। এ ছাড়া রামোস চারটি লা লিগা শিরোপা জিতেছেন।

* চারজন আলাদা কোচের অধীনে লিগ মৌসুম জিতেছেন রামোস। ২০০৭ সালে ফ্যাবিও ক্যাপেলো, ২০০৮ সালে বার্ন্ড সুস্টার, ২০১২ সালে হোসে মরিনহো এবং ২০১৭ সালে জিনেদিন জিদানের অধীনে খেলে লিগ শিরোপা জেতেন রামোস। এ ছাড়া রামোস চারটি স্প্যানিশ সুপার কাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন (২০০৮, ২০১২, ২০১৭ ও ২০১৯-২০)।

* রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড় হিসেবে ২১টি শিরোপা জিতেছেন রামোস। সান্তিয়াগো বার্নাব্যু অধ্যায়ে সবচেয়ে বেশি ২৩টি ট্রফি জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন কিংবদন্তি প্যাকো জেন্টো। তাকে ছোঁয়ার খুব কাছেই আছেন রামোস।

* স্পেন ফুটবলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা রামোসের। লা রোজাদের হয়ে এ পর্যন্ত ১৭০টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। গত বছরের অক্টোবরে তিনি ছাড়িয়ে গেছেন দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা ইকার ক্যাসিয়াসকে (১৬৭)। রামোস কোথায় গিয়ে থামেনÑ সেটাই এখন দেখার।

* সেভিয়া থেকে রিয়াল মাদ্রিদে আসার পর ৬৪০টি ম্যাচ খেলেছেন রামোস। ক্লাবের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলাদের কাতারে তিনি এখন পাঁচে। তবে শিগগিরই তিনি ছুঁয়ে ফেলবেন ক্লাব কিংবদন্তি রাউল গঞ্জালেসকে। রাউলের চেয়ে মাত্র এক ম্যাচ কম খেলেছেন।

* বর্ণিল ক্যারিয়ারে রামোসের বিব্রতকর রেকর্ড বলতে লাল কার্ড। স্প্যানিশ ফুটবলে ‘লাল কার্ডের রাজা’ বলা হয় তাকে। এ পর্যন্ত লিগে সর্বোচ্চ কুড়িটি লাল কার্ড দেখেছেন তিনি। এ ছাড়া চ্যাম্পিয়নস লিগে চারবার মাঠছাড়া হয়েছেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার, যা এই টুর্নামেন্টে যৌথভাবে সর্বোচ্চ লাল কার্ড দেখার নজির।

 

"