জন্মদিনে অন্য এক জাহানারা

প্রকাশ : ০২ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের চোখ রাঙানিতে দুনিয়াজুড়ে উদ্ভূত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। কোনো কিছু যেন আর স্বাভাবিক নেই। জীবন হারিয়েছে তার গতিপথ। আতঙ্কগ্রস্ত লোকজন এখন এক অনিশ্চিত ভবিষ্যতের সামনে দাঁড়িয়ে। এ অবস্থায় কি জন্মদিন পালন করা যায়? মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে সেটি করেননি জাহানারা আলম। বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের প্রধান পেস অস্ত্র বরং পৃথিবীতে আসার দিনটিতে গরিব-দুঃখীদের পাশে দাঁড়ালেন।

কাল ছিল জাহানারার ২৭তম জন্মদিন ছিল। সবকিছু স্বাভাবিক থাকলে হয়তো জাতীয় দলের সতীর্থ ও পরিবার-পরিজনদের নিয়ে কেক কাটতেন তিনি। কিন্তু করোনার কারণে উৎসবের আবহ নেই। তবে যাদের জীবনে আনন্দ-উৎসব কখনো ধরা দেয় না, তাদের পাশে দাঁড়াতে তো আর মানা নেই। চলমান দিনগুলো বিত্তবানদের জন্য ছুটি হিসেবে গণ্য হলেও খেটে খাওয়া জনজীবনে নেমে এসেছে অন্ধকার। গরিব-দুঃখীদের আঁধার জীবনে একটুখানি আলোর রেখা ছড়াতে কাজ করছেন বিত্তবানরাসহ দেশের ক্রিকেটাররা। সেই আবহেই নিজের সামর্থ্য আনুযায়ী অসহায়দের পাশে দাঁড়ালেন জাহানারা আলম।

নিজের স্বীকৃত ফেসবুক পেজে গতকাল করোনায় উপার্জন অক্ষম মানুষদের সাহায্য করার একাধিক ছবি পোস্ট করেছেন এই সুন্দরী। ছবিগুলোতে দেখা যাচ্ছে, অসহায় মানুষদের জন্য নিজ হাতেই ত্রাণসামগ্রী বয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বাঘিনি পেসার ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘এটা কোনো লোক দেখানো পোস্ট নয়। আমার সামর্থ্য অনুযায়ী যতটুকু সম্ভব হয়েছে আমি তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আপনাদেরও অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি। আপনার সামর্থ্যরে মধ্যে একজন, পাঁচজন বা তার অধিক যে যতটুকু পারেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। আমরা পারি আমাদের দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে।’

প্রাণঘাতী করোনা মোকাবিলায় জাতীয় দলের পুরুষ ক্রিকেটাররা ইতোমধ্যেই হাত প্রসারিত করেছেন। মুশফিক-তামিমরা তাদের চলতি মাসের বেতনের অর্ধেক দিয়ে করোনা তহবিলে দান করেছেন। দান করা অর্থের পরিমাণ ৩১ লাখ। তবে কর বাবদ ৫ লাখ টাকা বাদ দিয়ে তা ঠেকেছে ২৬ লাখে। দুস্থদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন সাবেক ক্রিকেটাররাও। গত রোববার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন চুক্তির বাইরে থাকা ক্রিকেটার এবং সেইসঙ্গে নারী ক্রিকেটারদের জন্যও ঘোষণা করেছেন অর্থ সাহায্য। এবার সেই দলে যুক্ত হলেন জাহানারাও।

 

"