ব্রডের বিকল্প উদ্যোগ

প্রকাশ : ২৫ মার্চ ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

হ্যারি গার্নির সঙ্গে যৌথ মালিকানায় ‘দ্য ক্যাট অ্যান্ড উইকেট’ নামের একটি পাব রয়েছে স্টুয়ার্ট ব্রডের। ব্যবসা ভালোই চলছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বেশ বিপাকে পড়ে গিয়েছিলেন এই দুই ইংলিশ ক্রিকেটার। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জনসমাগম বন্ধের ঘোষণা দেওয়ায় স্বাভাবিকভাবে দেশটির পাবগুলোও বন্ধ হতে শুরু করে। চাকরি হারানোর শঙ্কায় পড়েন ব্রড-গার্নির প্রতিষ্ঠানের কর্মীরাও। এই সময়ে বিকল্প বুদ্ধি খাটিয়ে কর্মীদের চাকরি বাঁচালেন তারা।

লেস্টারশায়ারের লাফব্রোতে একটি গ্রামে ব্রড-গার্নির পাবে কাজ করেন ২০ জন কর্মী। ব্রিটিশ সরকারের পাব বন্ধের ঘোষণার আভাস পেয়েই বুদ্ধিটা বের করে রেখেছিলেন তারা। ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে এই দুই ক্রিকেটার শুনিয়েছেন সেই গল্প। আপাতত তাদের পাব পরিণত হয়েছে খাবারের দোকানে, যেখানে বেকারি ও দুগ্ধজাত পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে।

তারকা পেসার ব্রড বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার তিন দিন আগেই তারা ব্যবসার ধরন বদলে ফেলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী (বরিস জনসন) জনসমাগম এড়াতে পাবে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন মানুষকে। তখনই বুঝেছিলাম বন্ধের ঘোষণা আসছে। তাই গত ১৬ মার্চ আমরা এটিকে খাবারের দোকানে পরিণত করি।’

নিজেদের ব্যবসার চেয়ে মূলত কর্মীদের কাজে ধরে রাখার চিন্তা থেকেই এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্রড, ‘আসলে আমরা তাদের চাকরি বাঁচাতে চেয়েছি। কারণ এখানে যারা কাজ করে, তারা এই আয় থেকে লোনের কিস্তি পরিশোধ করে। অর্থাৎ আমাদের ওপর নির্ভর করে। তাদের কথা মাথায় রেখেই বিকল্প বের করেছি, যাতে বেতন দিতে পারি।’

ব্রড-গার্নির খাবারের দোকানে বিভিন্ন ধরনের চিপস, পিৎজা, মাছ ও অ্যালকোহল পানীয় থাকছে। আর সেসব বাড়িতে গিয়ে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। খেলা না থাকায় ডেলিভারির কাজে নিবিড়ভাবে যুক্ত থাকবেন ব্রড নিজেই।

 

"